Breaking News
Home / আর্ন্তজাতিক / ১০ মাসে ৭৪৫ ফিলিস্তিনি শিশুকে গ্রেপ্তার করেছে ইসরায়েল

১০ মাসে ৭৪৫ ফিলিস্তিনি শিশুকে গ্রেপ্তার করেছে ইসরায়েল

আর্ন্তজাতিক ডেস্ক: ২০১৯ সালের অক্টোবর মাস পর্যন্ত সময়ে ৭৪৫ জন ফিলিস্তিনি শিশুকে গ্রেপ্তার করেছে ইসরায়েলি পুলিশ। সম্প্রতি প্যালেস্টিনিয়ান প্রিজনারস সোসাইটি(পিপিএস) নামে বেসরকারী একটি সংস্থা এই তথ্য প্রকাশ করে। এর মাধ্যমে ফিলিস্তিনিদের ভূখন্ডে দখলদার ইসরায়েলি কর্তৃপক্ষের নৃশংস আচরণের বিষয়টি ফুটে উঠেছে।

পিপিএসের প্রকাশিত ওই বার্ষিক প্রতিবেদনে বলা হয়,ফিলিস্তিনি শিশুদের গ্রেপ্তারের সময় ইসরায়েলি পুলিশ বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই মানবাধিকার লংঘন করে থাকে।

সম্প্রতি প্রকাশিত ওই প্রতিবেদন অনুযায়ী,বেশিরভাগ সময়ই রাতের অন্ধকারে ইসরায়েলি পুলিশ শিশুদের তাদের বাড়ি থেকে তুলে নিয়ে যায়।

গ্রেপ্তার করা এসব শিশুদের শিক্ষা থেকে বঞ্চিত করা হচ্ছে। এটি শিশু অধিকারের সুস্পষ্ট লংঘন বলে প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়। এছাড়া বেশিরভাগ শিশুদেরই তাদের পরিবারের সদস্যদের সঙ্গেও দেখা করতে দেয়া হয় না।  ঠিকমত চিকিৎসা সেবাও তারা পায় না।

পিপিএসের প্রতিবেদনে বলা হয়, বর্তমানে ইসরায়েলের বিভিন্ন আটক কেন্দ্রে প্রায় ২০০’র মত ফিলিস্তিনি শিশুকে বন্দী করে রাখা হয়েছে।

ইসরায়েলিদের বর্বরতার কবল থেকে ফিলিস্তিনি শিশুদের রক্ষা করার জন্য আন্তর্জাতিক বিভিন্ন মানবাধিকার সংস্থাসহ জাতিসংঘের শিশুবিষয়ক সংস্থা ইউনিসেফের প্রতি আহ্বান জানিয়েছে পিপিএস।

উল্লেখ্য, বিভিন্ন আটক কেন্দ্রে ফিলিস্তিনি শিশুদের প্রতি ইসরায়েলি কর্তৃপক্ষের অমানবিক আচরণ নিয়ে আন্তর্জাতিক মানবাধিকার সংস্থাগুলোর অনেকেই উদ্বেগ প্রকাশ করেছে। এক্ষেত্রে ফিলিস্তিনি কিশোরী আহেদ তামিমির কথা বলা যেতে পারে। তার প্রতি ইসরায়েলি বাহিনীর আচরণের তীব্র নিন্দা জানিয়েছিল মানবাধিকার সংগঠনগুলো।

এদিকে গত জুলাইয়ে প্যালিস্টিনিয়ান প্রিজনারস সেন্টার ফর স্টাডিজের প্রকাশিত একটি প্রতিবেদন থেকে জানা গেছে, চলতি বছর শিশুদের গ্রেপ্তারের সংখ্যা অন্যান্য বছরের তুলনায় শতকরা ৩০ ভাগ বেড়ে গেছে। ২০১৭ সালে একই সময়ে ৩৮০ জন শিশুকে গ্রেপ্তার করা হয়েছিল।

Check Also

গোপনে করোনার প্রতিষেধক তৈরি করে ফেলেছে চীন!

নিউজ ডেস্ক: বর্তমান বিশ্বের সবচেয়ে বড় চ্যালেঞ্জের নাম কভিড-১৯। কারণ গত তিন মাসেই এ করোনা অতিমারী …

%d bloggers like this: