Home / খেলাধুলা / ভারতের ২০ উইকেট নেওয়া সম্ভব: মিথুন

ভারতের ২০ উইকেট নেওয়া সম্ভব: মিথুন

স্পোর্টস ডেস্ক: টেস্ট ম্যাচ জিততে হলে প্রতিপক্ষের ২০ উইকেট নেওয়া অবশ্যকর্তব্য। প্রতিপক্ষ দল বাংলাদেশের ২০ উইকেট একাধিকবার নিতে পারলেও বাংলাদেশ পেরেছে খুব কমই। ফলে বাংলাদেশের টেস্ট সাফল্যও খুব একটা নেই।

১১৫ টেস্টে ১৩ জয় আর ১৬ ড্রয়ের বিপরীতে বাংলাদেশের হার ৮৬ ম্যাচে। ব্যর্থতার এমন রেকর্ডকে সঙ্গী করে বাংলাদেশ পা রাখতে যাচ্ছে টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপে। শুরুতেই বাংলাদেশের সামনে ভয়ংকর ভারতীয় ব্যাটিং লাইনআপ। বিরাট কোহলির নেতৃত্বে এই লাইনআপে আছেন রোহিত শর্মা, চেতেশ্বর পূজারা, মায়াঙ্ক আগারওয়াল, ঋদ্ধিমান সাহা, অজিঙ্কা রাহানেরা। রবীন্দ্র জাদেজা, রবিচন্দ্রন অশ্বিনও কম ব্যাট চালাতে জানেন না। ভারতকে এক টেস্টে দুবার অলআউট করার সামর্থ্য কি আছে টিম বাংলাদেশের?

ইন্দোরে টেস্ট খেলতে এসেছেন মুস্তাফিজুর রহমান, আল-আমিন হোসেন, আবু জায়েদ রাহী, ইবাদত হোসেন। স্পিন আক্রমণে আছেন তাইজুল ইসলাম, মেহেদী হাসান মিরাজ ও নাঈম হাসান। তাদের ওপরই বাংলাদেশের বোলিং আক্রমণ নির্ভরশীল। মুস্তাফিজ বোলিংয়ে বেশ খারাপ সময় কাটাচ্ছেন। পছন্দের ফরম্যাট টি-টোয়েন্টিতে ভারতের বিপক্ষে একটি উইকেটও পাননি। লাল বলে মুস্তাফিজ সবশেষ খেলেছেন চলতি বছরের মার্চে, ওয়েলিংটনে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে। তার থেকে ভারত সফরে বাংলাদেশ কতটুকু পাবে, তা নিয়ে সন্দেহের শেষ নেই।

রাহী ও ইবাদত পেস বোলিং আক্রমণের নবীনতম সমস্য। আনকোরা এই দুই পেসার কতটুকু পারবেন, তা সময় বলে দেবে। এছাড়া সাড়ে তিন বছর পর দলে ফেরা আল-আমিনও আছেন। দুই অফ স্পিনার মিরাজ ও নাঈম বাংলাদেশের স্পিন আক্রমণের ভরসার আরেক নাম। আর বাঁহাতি স্পিনার তাইজুল বোলিংয়ের সবচেয়ে বড় ঐশ্বর্য। সমিল্লিত এ বোলিং আক্রমণ কোহলিদের জন্য কি যথেষ্ট?

দলের গুরুত্বপূর্ণ ব্যাটসম্যান মোহাম্মদ মিথুনের বিশ্বাস, যে বোলিং আক্রমণ বাংলাদেশের আছে, তা দিয়ে ভারতের ২০ উইকেট নেওয়া সম্ভব। দলের প্রতিনিধি হয়ে মঙ্গলবার সংবাদ সম্মেলনে এসেছিলেন মিথুন। সতীর্থদের ওপর আস্থা রেখে মিথুন বলেন, ‘বিশ্বাস করি ভারতের ২০ উইকেট নেওয়া সম্ভব। আমি একজন ব্যাটসম্যান, আমার আউট হতে একটা বলই লাগে। এটা সব ব্যাটসম্যানের ক্ষেত্রেই প্রযোজ্য। আমরা যদি চাপ তৈরি করতে পারি, যে বোলিং আক্রমণ আছে আমাদের…তারা যদি শৃঙ্খলতা মেনে বোলিং করতে পারে তাহলে অবশ্যই ভারতের ২০ উইকেট নেওয়া সম্ভব।’

টেস্ট ম্যাচে ভারতকে প্রথম ইনিংসে বাংলাদেশ অলআউট করতে পেরেছে মাত্র চারবার। সর্বনিম্ন ২৪৩ রানে অলআউট করেছে ২০১০ সালে চট্টগ্রামে। ওই ম্যাচে দ্বিতীয় ইনিংসে ৪১৩ রান করেছিল টিম ইন্ডিয়া। এছাড়া অলআউট হওয়া বাকি ম্যাচগুলোতে ভারতের স্কোর ছিল ৫৪০ (২০০৪ সাল), ৫২৬ (২০০৪ সাল) এবং ৪২৯ (২০০০ সাল)। অতীত রেকর্ড বাংলাদেশের পক্ষে কথা বলছে না। এবার কি ইন্দোরে সেই ইতিহাস পাল্টাতে পারবেন বোলাররা?

মিথুনের বিশ্বাস, বাংলাদেশ এবার ভালো ফল পাবে, ‘আমাদের দলটি ভারসাম্যপূর্ণ। ব্যাটিং, বোলিং দুই দিক থেকেই দলে ভালো ভারসাম্য আছে। যখন আমরা দল হিসেবে খেলতে পারি তখন আমরা ভালো করি। জিততে হলে আমাদের একজন-দুইজনের ওপর নির্ভর করলে চলবে না। পুরো দলেরই ভালো করতে হবে। বিশেষ করে ভারতের মতো দলের বিপক্ষে দলগতভাবে খেলতে পারলে আমাদের সম্ভাবনা থাকবে।’

Check Also

কাপড় কাচতে ব্যস্ত ধাওয়ানের টুইট, ‘বাস্তবতা বড় কঠিন’

নিউজ ডেস্ক: করোনাভাইরাসের ভয়াল থাবায় বিশ্বের সব স্পোর্টিং ইভেন্ট বন্ধ। ব্যতিক্রম নয় ক্রিকেটও। বিশ্বব্যাপী ঘরবন্দি হয়ে …

%d bloggers like this: