Home / দেশজুড়ে / ২ কোটি টাকা আত্মসাত, অফিস সহকারীর লকারে ২২ লাখ

২ কোটি টাকা আত্মসাত, অফিস সহকারীর লকারে ২২ লাখ

নিউজ ডেস্ক: নওগাঁয় সঞ্চয় অফিসে গ্রাহকের থেকে প্রায় ২ কোটি ২৫ লাখ টাকা আত্মসাতের ঘটনায় অফিসের উচ্চমান সহকারী হাসান আলীকে আটক করেছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)। এ সময় তার অফিস কক্ষের আলমারি থেকে ২২ লাখ ৮৭ হাজার উদ্ধার করা হয়।

২৫ সেপ্টেম্বর, বুধবার বিকেলে দুদকের রাজশাহী জেলা সমন্বিত কার্যালয়ের তদন্ত দল এ অভিযান পরিচালনা করে।

তদন্ত কর্মকর্তা দুদকের সহকারী পরিচালক আলমগীর হোসেন জানান, এর আগে গত জুন মাসে নওগাঁয় জাতীয় সঞ্চয় অধিদপ্তরে গ্রাহকের প্রায় ২ কোটি ২৫ লাখ টাকা আত্মসাতের ঘটনায় ধরা পড়ে। বিভাগীয় অডিটে বিষয়টি বেরিয়ে আসার পর এতে অফিস সহায়ক সাদ্দাম হোসেনকে দায়ী করেন কর্মকর্তারা। তখন থেকেই ঘটনাটি অনুসন্ধানে নামে দুদক।

আলমগীর হোসেন আরো জানান, গ্রাহকের টাকা আত্মসাতের ঘটনা ধরা পড়ার পর নওগাঁ সঞ্চয় অধিদপ্তরের ভারপ্রাপ্ত সঞ্চয় কর্মকর্তা নাসির হোসেন বাদী হয়ে গত ১৫ জুন অফিস সহকারী সাদ্দাম হোসেনের বিরুদ্ধে নওগাঁ সদর মডেল থানায় একটি মামলা দায়ের করেন।

নওগাঁ সঞ্চয় অধিদপ্তর অফিসে ২০১৪ সাল থেকে অফিস সহায়ক পদে কর্মরত ছিলেন সাদ্দাম হোসেন। ২০১৮ সালের ডিসেম্বর থেকে হঠাৎ করে অফিসে আসা বন্ধ করে দেন তিনি। এরপর ৭ মাস অফিসে আসেননি। সাদ্দাম হোসেন বেশ কিছু আমানতের হিসাবের রেকর্ড না রেখে গ্রাহককে ভুয়া সিল-স্বাক্ষরে রশিদ দিয়েছেন। এ ধরনের বিভিন্ন পন্থায় ২ কোটি ২৫ লাখ টাকা আত্মসাৎ করা হয়েছে।

অভিযুক্ত সাদ্দাম হোসেন গাইবান্ধা জেলা সদরের পশ্চিম কোমরনই গ্রামের বক্তার আলীর ছেলে। গত ২৫ জুন দুদকের রাজশাহী বিভাগীয় কার্যালয়ের অনুসন্ধানীদল তাকে আটক করে। বর্তমানে দুদকের টিম এ মামলার তদন্ত করছে।

এ ঘটনার জের ধরে সাদ্দাম হোসেনের দেওয়া তথ্য মতে, গ্রাহকের ২ কোটি ২৫ লাখ টাকা উচ্চমান সহকারী হাসান আলী জড়িত থাকার বিষয়টি প্রকাশ পায়।  এ ঘটনায় গোপন সংবাদের ভিত্তিতে আজ বিকেলে দুদক জেলা সঞ্চয় অফিসে অভিযান চালিয়ে ২২ লাখ ৮৭ হাজার টাকাসহ উচ্চমান সহকারী হাসান আলীকে আটক করে।

Check Also

অতিরিক্ত মূল্যে লবণ বিক্রি : ৪ ব্যবসায়ীকে কারাদন্ড, ১৩ প্রতিষ্ঠানকে জরিমানা

নিউজ ডেস্ক: হবিগঞ্জে অতিরিক্ত মূল্যে লবণ বিক্রির অপরাধে জেলার বিভিন্ন স্থানে চার ব্যবসায়ীকে বিভিন্ন মেয়াদে কারাদন্ড …

%d bloggers like this: