Home / জাতীয় / ঐক্যফ্রন্ট ছাড়তে বিএনপিকে লেবার পার্টির আল্টিমেটাম

ঐক্যফ্রন্ট ছাড়তে বিএনপিকে লেবার পার্টির আল্টিমেটাম

জাতীয় ডেস্ক: আগামী ২৩ তারিখ পর্যন্ত বিএনপিকে ঐক্যফ্রন্ট ছাড়ার আল্টিমেটাম দিয়েছে ২০দলীয় জোটের অন্যতম শরিক বাংলাদেশ লেবার পার্টির চেয়ারম্যান ডা. মো. মোস্তাফিজুর রহমান ইরান। এ সময়ের মধ্যে বিএনপি ঐক্যফ্রন্ট না ছাড়লে লেবার পার্টি ২৪ তারিখে ২০দলীয় জোট ছাড়ার আনুষ্ঠানিক সিদ্ধান্ত জানাবে বলে জানান তিনি। মঙ্গলবার দুপুরে সাথে আমাদের সময় ডটকমের সাথে আলাপকালে এসব কথা বলেন তিনি।

ইরান বলেন, ২৩ তারিখ পর্যন্ত ঐক্যফ্রন্ট ছাড়ার জন্য বিএনপিকে আল্টিমেটাম দিয়েছি। গণফোরাম সভাপতি ড.কামাল হোসেন, জেএসডি সভাপতি আসম আব্দুর রব, কৃষক শ্রমিক জনতা লীগের সভাপতি বঙ্গবীর কাদের সিদ্দিকি সরকারের একটা মিশন নিয়ে তারা আসছে ঐক্যফ্রন্টে। ঐক্যফ্রন্ট তার লক্ষ্য উদ্দেশ্য সম্পূর্ণ ব্যর্থ হয়েছে। সরকারের এজেন্ডা নিয়েই তারা কাজ করতেছে। এ কারণে বিএনপিকে ঐক্যফ্রন্ট ছাড়তে হবে। যার কারণে বিএনপিকে ড.কামালদেরকে ছাড়তে হবে।

তিনি বলেন, ঐক্যফ্রন্ট ছাড়তে হবে, বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তির জন্য যথাযথ পদক্ষেপ নিতে হবে। দেড় বছর বছর যাবত খালেদা জিয়া কারান্তরীন তার জন্য যথাযথ কর্মসূচি দিচ্ছে না। বিএনপির নেতৃবৃন্দ খালেদা জিয়ার মুক্তির ব্যাপারে কতটা আন্তরিক তা নিয়েও জনমনে প্রশ্ন উঠেছে।

ইরান বলেন, আমরা বিএনপিকে আল্টিমেটাম দিয়েছি ২৩ তারিখ পর্যন্ত। ২৪তারিখে আমরা সাংবাদিকদের মুখোমুখি হবো। প্রেসকনফারেন্স করবো, সেখানে আমরা আমাদের অবস্থান ক্লিয়ার করবো।

তিনি বলেন, আমাদের বিশ্বাস বিএনপি জনগণের সাথে থাকবে, বিএনপি এদেশের গণমানুষের দল এবং বেগম খালেদা জিয়ার হচ্ছে জাতীয়তাবাদী শক্তির মূর্ত প্রতীক। বাংলাদেশের গণতন্ত্র এবং ভবিষ্যতই হচ্ছে বেগম খালেদা জিয়া।

ইরান আরো বলেন, বিএনপি দল এবং জোট পরিচালনয়া চরমভাবে ব্যর্থএটা পরিস্কার। আমরা ২০দলীয় জোটকে কার্যকর রাখতে চাই। ২০দলীয় জোট আমাদের রক্তের ওপর দিয়ে প্রতিষ্ঠিত হয়েছে। এই ২০দলীয় জোটের কারনে আমি ৫বার গ্রেপ্তার হয়েছি। যুবলীগের হামলার শিকার হয়েছি। বাংলাদেশের লক্ষ লক্ষ নেতাকর্মী হামলা মামলা গুম খুন অপহরণের শিকার। ২০দলীয় জোটই আন্দোলন সংগ্রামের পরীক্ষিত জোট। পরিকল্পিত ষড়যন্ত্রের কারণে জোটকে বাইরে রাখা হয়েছে। যে সব নেতাদের ফাঁসি হয়েছে। এই জোটে থাকাটা তার অন্যতম কারণ। আওয়ামী লীগের একটা এজেন্ড হচ্ছে এই ঐক্যফ্রন্ট।

বিএনপি বিশ্বাসঘাতকতা করেছে মন্তব্য করে ২০দলের এই শরিক নেতা বলেন, বিএনপি সংসদে গিয়ে জনগণের সাথে জোটের যাথে বিশ্বাসঘাতকতা করেছে। জোট এবং ফ্রন্টের সিদ্ধান্তই ছিলো সংসদে না যাওয়া। এটা তারা সঠিক কাজ করে নাই। একদিকে নির্বাচন প্রত্যাখান করবো আরেকদিকে সংসদে যাবো। তাহলে তো ওই সংসদকে বৈধতা দেওয়া হয়। নতুন নির্বাচনের আমাদের দাবি থাকে কোথায়। নতুন নির্বাচন চাই, আমরা বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তি চাই।

এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, শুধু আমার দল নয়, আমি যদি ২০দলীয় জোটে না থাকি তাহলে আরো অন্তত ৪ থেকে ৫টি দল এই জোট থেকে বেরিয়ে যাবে।

Check Also

ভারত দিচ্ছে ২০টি রেল ইঞ্জিন

নিউজ ডেস্ক: ভারত থেকে ২০টি লোকোমেটিভ আগামী অক্টোবরে আসতে পারেন বলে জানিয়েছেন রেলপথমন্ত্রী নুরুল ইসলাম …

%d bloggers like this: