Home / ঘুরে দেখা / স্বল্প খরচে মেরিন ড্রাইভ বীচে ক্যাম্পিং ট্যুর

স্বল্প খরচে মেরিন ড্রাইভ বীচে ক্যাম্পিং ট্যুর

সুজাউদ্দিন ফারুক সোহান: বর্তমানে আমরা একটু সুযোগ পেলেই ছুটে যায় প্রকৃতির কাছাকাছি। মনকে একটু হালকা ও রিফ্রেস করাই যার লক্ষ। তবে এই ছুটে চলা আমাদের এখন নেশা হয়ে দাড়িয়ে। ফলে কয়েক মাস পরপরই চলে যাই দূরে কোথায়। যা আমাদের পকেটকেও প্রভাবিত করে। সেজন্য সবসময় স্বল্প খরচে ট্যুর দেয়ার চেস্টা করি সবাই। তো আজ আমরা এমনি একটি এ্যাডভেঞ্চার পূর্ন ট্যুর কিভাবে কম দেয়া যায় তা জানার চেস্টা করবো।

২৩০০ টাকার মধ্যেই মেরিন ড্রাইভের পাশে বীচে ক্যাম্পিং ট্যুর দেওয়া সম্ভব, কিভাবে দেখুন!

ঢাকা টু কক্সবাজার – ৮০০+৮০০=১৬০০ টাকা (যাওয়া আসা)

ক্যাম্পিং এর জন্য আমার পছন্দের জায়গা ৪৫ কিলো দূরে শামলাপুর।

কক্সবাজার টু শামলাপুর ৮০+৮০=১৬০ (যাওয়া আসা)

২ বেলা সকালের নাস্তা: ৫০+৫০=১০০
৩ বেলা মূল খাবার: ১৩০+১৩০+১৩০= ৩৯০
খাবারের জন্য শামলাপুর বাজারে হোটেল আছে, বীচের পাশেও একটা হোটেল আছে! ১২০ টাকায় ভালভাবেই খাওয়া দাওয়া করা সম্ভব! রুপচাদা বা নিজের পছন্দের অন্য কোন সামুদ্রিক মাছ খেতে চাইলে একটু বাড়বে খাবারের খরচ!

তাহলে টোটাল খরচ দাঁড়ালো : ১৬০০+১৬০+১০০+৩৯০= ২২৫০ টাকা!

নিজের তাবু থাকলে এর চাইতে বেশি আর খরচ হবেনা এই ট্যুরে! যাদের তাবু নেই তারা ঢাকা থেকে প্রতি রাত ১০০ টাকা হিসেবে তাবু ভাড়া নিয়ে যেতে পারেন!

ঢাকায় ফেরার আগে কক্সবাজার শহরেরর লাবনী পয়েন্ট বা কলাতলিতেও ঘুরতে পারেন, আলাদা কোন খরচ নেই!

এখন যদি কেউ শামলাপুর থেকে টেকনাফের শাহপরীর দ্বীপও ঘুরে আসতে চায় তাহলে কিছু খরচ বাড়বে! এই দ্বীপটাও অনেক সুন্দর, কেউ চাইলে ক্যাম্পিং করার পরের দিন (২য় দিন) সকালে ওখান থেকেও ঘুরে আসতে পারেন, তখন আরো ২০০-২৫০ টাকা খরচ হবে! শামলাপুর থেকে দক্ষিণে অর্থাৎ টেকনাফ সদরের আরো পরে এই দ্বীপ! শামলাপুর থেকে ফিরে আসার সময় জনপ্রিয় দুই পর্যটন স্পট ইনানী ও হিমছড়িও ঘুরে আসতে পারেন! এক্সট্রা ২০ টাকা খরচ হবে মাত্র!

মূল খরচ অই ২৩০০ টাকার মধ্যেই সীমাবদ্ধ, বাড়তি স্পটে ঘুরতে চাইলে খরচ বাড়বে!

কয়েকজন ফ্রেন্ড মিলে প্ল্যান করে ফেলুন, বীচের পাড়ে ক্যাম্পিং এর মজাই আলাদা! আর সেটা যদি চাঁদনী রাতে হয় তাহলে তো কথাই নেই!

ক্যাম্পিং এর জন্য এই জায়গাটা কেন আমার পছন্দ তা নিয়ে কয়েকদিন আগে একটা পোস্ট দিয়েছিলাম, সেটাও দেখে নিতে পারেন! এদিকে বীচ আর মেরিন ড্রাইভ রোড অনেক বেশি সুন্দর! বাথরুম ও গোসলের ব্যবস্থা আছে, নিজেরা রান্না করতে চাইলে পাশে বাজারও আছে!

সতর্কতা:

– একসাথে অন্তত ১০-১২ জনের গ্রুপ যাওয়া বেটার!

– সন্ধ্যার পর একাকী ক্যাম্প সাইট থেকে দূরে কোথাও যাবেন না!

– বড় গ্রুপ হলে মেয়েরাও যেতে পারবেন!

আরো কিছু জানার থাকলে নক করতে পারেন!

আগামী নভেম্বরে আমরা কয়েকজন এই খরচে এখানে একটা ক্যাম্পিং ট্যুর দিতে পারি, কেউ আমাদের সাথে চাইলে ইনবক্সে জানাতে পারেন!

আর প্রবাল দ্বীপ সেন্টমার্টিনেও মাত্র ২৮০০-২৯০০ টাকায় ক্যাম্পিং ট্যুর দেওয়া সম্ভব, সেটা নিয়ে আরেকদিন লিখব !

যারা নিয়মিত ঘুরতে পছন্দ করেন তারা নিজেরা তাবু কিনে ফেলতে পারেন, কম খরচে ঘুরার জন্য তাবু জিনিসটা খুব কার্যকরী! সাজেক, সেন্টমার্টিন, কক্সবাজারে সবাই যখন হোটেলে থাকবে তখন আপনি থাকবেন তাবুতে! তখন ট্যুরের খরচ অনেক কমে যাবে!

ছবি- গুগল

ভ্রমন সম্পর্কে আরো নিউজ পরতে ক্লিক করুন এই লিঙ্কে….

এখনি সময়, ঘুরে আসুন শান্তির দেশ ভুটান হতে (ভিডিও সহ)

Check Also

নড়াইলে রাণী রাশমণি এস্টেটের কাচারী বাড়ী

নড়াইল প্রতিনিধি: বাংলার মহিয়সী নারী লোকমাতা রানী রাসমণির কাছারি বাড়ি ছিল, আমাদের বাংলাদেশের নড়াইল এর …

%d bloggers like this: