Home / আর্ন্তজাতিক / সৌদি আরবে আসলে কী ঘটেছিল জানালেন সাদ হারিরি

সৌদি আরবে আসলে কী ঘটেছিল জানালেন সাদ হারিরি

আর্ন্তজাতিক ডেস্ক : সম্প্রতি সৌদি আরব সফরকালে নিজের পদত্যাগের ঘোষণার পর দেশে ফিরে তা স্থগিত করেন হারিরি। এরপর সোমবার এক বিবৃতিতে আবার নিজের অবস্থান স্পষ্ট করলেন তিনি।

ফরাসি সংবাদমাধ্যম সি নিউজকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে হারিরি বলেন, হিজবুল্লাহ যদি তার স্থান থেকে সরে না দাঁড়ায় তবে আমি মন্ত্রিত্ব ছেড়ে দিব। এ ছাড়া ভবিষ্যতে পরামর্শের ভিত্তিতে সরকারের ভারসাম্যে পরিবর্তন আসতে পারে এবং আমরা প্রাথমিক নির্বাচনের জন্য প্রস্তুত বলেও জানান তিনি।

গত ৪ নভেম্বর সৌদি সফরে গিয়ে আকস্মিক পদত্যাগের ঘোষণা দেন সাদ হারিরি। পদত্যাগের কারণ হিসেবে ইরান সমর্থিত শিয়াপন্থী সংগঠন হিজবুল্লাহকে দায়ী করেন তিনি।

হারিরি বলেছিলেন, খুন হওয়ার ভয়েই তিনি দায়িত্ব থেকে সরে দাঁড়াচ্ছেন। তবে বিশ্লেষকদের দাবি, সৌদি আরবের চাপেই পদত্যাগ করেছেন তাদের মিত্র হারিরি। হিজবুল্লাহর মুখোমুখি হতে ব্যর্থ হওয়ায় তাকে সরিয়ে দিয়েছে সৌদি কর্তৃপক্ষ।

তবে তার পদত্যাগের সিদ্ধান্ত মেনে নেননি লেবাননের প্রেসিডেন্ট মিশেল আউন। তিনি জানিয়েছিলেন, দেশে ফিরে পদত্যাগপত্র জমা দেওয়ার পর সিদ্ধান্ত নেবেন তিনি। এরপর দেশে ফিরেই সাদ হারিরি জানান, পদত্যাগ করছেন না তিনি।

অন্যদিকে ২ নভেম্বর সৌদি যুবরাজ মোহাম্মদ বিন সালমানের নেতৃত্বে দুর্নীতি দমন অভিযানের নামে ১১ জন প্রিন্সসহ প্রায় ২০০ কর্মকর্তাকে গ্রেপ্তার করা হয়।

সে সময়ই পদত্যাগের ঘোষণা দেন হারিরি। বিশ্লেষকেরা বলছেন, একদিকে অভ্যন্তরীণ কর্তৃত্ব নিরঙ্কুশ করতে দুর্নীতিবিরোধী শুদ্ধি অভিযান, অন্য দিকে আঞ্চলিক আধিপত্য জোরদারে লেবানন ও ইয়েমেনকে ইরানবিরোধী ছায়াযুদ্ধের নাট্যমঞ্চ বানায় সৌদি আরব।

এ দিকে প্রতিবেশী দেশগুলোর ওপর সৌদি আরব কর্তৃপক্ষ মধ্যপ্রাচ্যকে অস্থিতিশীলতার দিকে ঠেলছে উল্লেখ করে উদ্বেগ জানিয়েছেন কাতারের উপপ্রধানমন্ত্রী মোহাম্মদ বিন আবদুল রহমান আলে সানি।

লন্ডনে এক গোলটেবিল আলোচনায় তিনি এ কথা বলেন। তিনি বলেন, সৌদি সরকার প্রতিবেশী দেশগুলোর ওপর মোড়লিপনা করছে এবং মধ্যপ্রাচ্যে নতুন সংঘাত শুরুর ঝুঁকি তৈরি করছে। আর সৌদি আরবের এ আধিপত্য প্রতিষ্ঠার অভিযানের সবশেষ লক্ষ্যবস্তু লেবানন বলেও উল্লেখ করেন তিনি।

৪ নভেম্বর সৌদি আরব থেকে দেওয়া এক টেলিভিশন ভাষণে পদত্যাগের ঘোষণা দিয়েছিলেন লেবাননের প্রধানমন্ত্রী সাদ হারিরি। এর পর থেকে তিনি সৌদি আরবে ছিলেন।

লেবানন তখন দাবি করেছিল, হারিরিকে বলপূর্বক আটকে রেখে পদত্যাগের ঘোষণা দিতে বাধ্য করে সৌদি কর্তৃপক্ষ। আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যমগুলোতেও ইঙ্গিত দেওয়া হয় ইরানকে ঠেকাতে সৌদি আরব লেবাননকে নাট্যমঞ্চ বানিয়েছে।

Check Also

বিশ্বে করোনায় মৃত্যু ছাড়াল ৯ লাখ ১৩ হাজার

নিউজ ডেস্ক : বৈশ্বিক মহামারি করোনাভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা প্রায় ২ কোটি ৮৩ লাখ ২৪ হাজার …

%d bloggers like this: