Home / জাতীয় / যেসব ক্ষেত্রে করোনা টেস্ট করাবেন

যেসব ক্ষেত্রে করোনা টেস্ট করাবেন

নিউজ ডেস্ক : করোনাভাইরাসের মহামারি তাণ্ডবে বিপর্যস্ত পুরোবিশ্ব। যদিও ইতোমধ্যে ভাইরাসটির সংক্রমণ কিছু কমে আসলেও আতঙ্কে দিন কাটছে সবাই। কিছুতেই কমছে না আক্রান্ত ও মৃতের সংখ্যা। তাই মহামারির এই সময়ের মধ্যে একটু কাশি, সর্দি কিংবা জ্বর হলেই ভয় চেপে বসে। তাহলে করণীয় কি, সেই বিষয়ে বিশেষজ্ঞরা বলছে গা গরম বা সর্দি-কাশি হলেই তা করোনা নয়।

কিন্তু কী করে বুঝবেন আপনি করোনা আক্রান্ত কি না? কোন উপসর্গ দেখে করোনা পরীক্ষা করাবেন? এ নিয়ে মেডিকেল জার্নালে বিশেষ গাইডলাইনস দিচ্ছেন বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকরাও।

ফ্রন্টনিয়ার্সের ‘পাবলিক হেলথ’ মেডিকেল জার্নালে গবেষকরা বলেছেন, জ্বর বা সর্দি-কাশি মানেই ভাইরাসের সংক্রমণ নাও হতে পারে। মামুলি ভাইরাল জ্বর কিংবা ঠান্ডা লেগেও জ্বর আসতে পারে। বরং কয়েকটি উপসর্গ পরপর দেখা গেলে, তবেই করোনা পরীক্ষা করানো যেতে পারে। কী কী সেই উপসর্গ?

বিজ্ঞানীরা জানাচ্ছেন, করোনা সংক্রমণের প্রথম উপসর্গ শরীরের তাপমাত্রা বেড়ে যাওয়া। সেখান থেকে জ্বর। আর জ্বরের সঙ্গেই সর্দি বা শুকনো কাশি। ক্রমাগত কাশি চলতেই থাকবে। সারা শরীরে অসহ্য যন্ত্রণা শুরু হবে। বিশেষত পেশির ব্যথায় কাবু হবে রোগী। বমিভাব, ঝিমুনি একই সঙ্গে দেখা দেবে। কিছুদিন পর থেকেই হজমের সমস্যা শুরু হবে। পেট খারাপও হতে পারে রোগীর। একই সঙ্গে ঠোঁট ও জিভে নীলচে ছোপ পড়তে পারে। অনেকেরই মুখের স্বাদ ও নাকের গন্ধ নেয়ার ক্ষমতা চলে যায়। সেদিকেও খেয়াল রাখতে হবে।

চিকিৎসরা জানাচ্ছেন, এইগুলো প্রাথমিক উপসর্গ। এই উপসর্গগুলো যদি টানা চলতে থাকে তাহলেই কোভিড টেস্ট করাতে হবে। সঠিক সময় চিকিৎসা না শুরু হলে এক সপ্তাহের মধ্যেই তীব্র শ্বাসকষ্ট দেখা দিতে পারে। সেই সঙ্গে বুকে ব্যথা।

তীব্র মানসিক অবসাদ এমনকি ইনসোমেনিয়ারও দেখা দিতে পারে। তবে জ্বর মানেই করোনা নয়। তাই জ্বর হলে বাকি উপসর্গগুলোর দিকেও নজর রাখতে হবে।

Check Also

রাতে জাতিসংঘে ভাষণ দেবেন প্রধানমন্ত্রী

নিউজ ডেস্ক : প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আজ শনিবার (২৬ সেপ্টেম্বর) নিউইয়র্কে জাতিসংঘ সাধারণ পরিষদের (ইউএনজিএ) …

%d bloggers like this: