Home / আইন-আদালত / মেহেরপুরে কৃষক হত্যা মামলায় তিনজনের যাবজ্জীবন

মেহেরপুরে কৃষক হত্যা মামলায় তিনজনের যাবজ্জীবন

দেশজুড়ে ডেস্ক: মেহেরপুরে গাংনীতে কৃষক নুরুল হুদা হত্যা মামলায় তিনজনের যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। ‌আজ মঙ্গলবার বিকেল ৩টার দিকে মেহেরপুরের অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ টি এম মুসা এ আদেশ দেন।

যাবজ্জীবন দণ্ডপ্রাপ্তরা হলেন গাংনী উপজেলার বানিয়াপুকুর গ্রামের করিম বক্সের ছেলে মো. বাবলু, মৃত পাঁচু মণ্ডলের ছেলে মোজাম্মেল হক এবং মৃত আছের আলীর ছেলে আইউব আলী। মামলায় বাকি আট আসামিকে বেকসুর খালাস দেওয়া হয়েছে।

খালাসপ্রাপ্তরা হলেন একই গ্রামের মনিরুল ইসলাম, ওয়াজেদ আলী, আজিজুল হক, শরিয়ত হোসেন, মুকুল হোসেন, আতিয়ার রহমান, সোহরাব হোসেনও একই উপজেলার মানিকদহ গ্রামের সাজেদুল ইসলাম। আদেশ পড়ার সময় আদালতে মামলার ১০ আসামি হাজির থাকলেও যাবজ্জীবন দণ্ডপ্রাপ্ত আসামি মো. বাবলু পলাতক ছিলেন।

মামলার বিবরণে জানা গেছে, ২০১০ সালের ১৩ জুন সন্ধ্যার দিকে গাংনী উপজেলার বানিয়াপুকুর গ্রামের কৃষক নুরুল হুদা পাশের তালতলা গ্রামের মাঠ থেকে কাজ শেষে বাড়ি ফিরছিলেন। পূর্ব বিরোধের জের ধরে আগে থেকে ওত পেতে থাকা আসামিরা ধারালো অস্ত্র দিয়ে নুরুল হুদার ওপর অতর্কিতে হামলা চালিয়ে জখম করে। পরে তাকে উদ্ধার করে গাংনী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেওয়া হলে সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়। পরদিন নুরুল হুদার ভাতিজা মো. আলম বাদী হয়ে ওই ১১ জনকে আসামি করে গাংনী থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন।

মামলার প্রাথমিক তদন্ত শেষে ২০১০ সালের ১৬ সেপ্টেম্বর আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করেন তদন্তকারী কর্মকর্তা।
মামলায় ১১ জন সাক্ষী সাক্ষ্য প্রদান করেন। সাক্ষীদের সাক্ষ্য ও মামলার নথি পর্যবেক্ষণ করে আজ মঙ্গলবার বিকেলে মেহেরপুরের অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিচারক টি এম মুসা তিন জনের যাবজ্জীবন ও বাকি আসামিদের বেকুসর খালাস দিয়েছেন।

মামলায় রাষ্ট্রপক্ষে অতিরিক্ত পাবলিক প্রসিকিউটর কাজী শহিদুল হক এবং আসামি পক্ষে শহিদুল ইসলাম আইনজীবীর দায়িত্ব পালন করেন।

Check Also

এই সৌদি প্রবাসীদের কী হবে?

নিউজ ডেস্ক  : সৌদি আরবে নতুন করে বাংলাদেশ বিমানের ল্যান্ডিংয়ের অনুমতি না মেলায় জটিলতা কাটছে …

%d bloggers like this: