Home / জাতীয় / ভাইরাল হওয়া কবিতায় প্রশ্নের মুখে বিশ্বনেতারা (ভিডিও)

ভাইরাল হওয়া কবিতায় প্রশ্নের মুখে বিশ্বনেতারা (ভিডিও)

নিউজ ডেস্কঃ একে ফরটি সেভেন-

আজ কোন শত্রুকে বধ করবে?

কোন মন্ত্রে বাঁচাবে তোমায় ওরা?

তুমি বড় অসহায়, বড় ক্ষুদ্র,

বড় নিঃস্ব, সামান্য মানুষ।

খুব সামান্য।’

‘হ্যাভেন অব দি আর্থ’ শিরোনামের এই কবিতাটি মানুষকে অনেকগুলো প্রশ্নের মুখোমুখি দাঁড় করিয়ে দিয়েছে। কবি শাহীন রেজা রাসেল করোনাসৃষ্ট এই দুর্যোগকালে এই কবিতার মাধ্যমে আরেকবার স্মরণ করিয়ে দিয়েছেন- কোটি টাকার মারণাস্ত্র মানুষকে কোনো নিরাপত্তাই দিতে পারে না।

কবিতাটি আবৃত্তি করে অন্তর্জালে পোস্ট করার পর দ্রুত ভাইরাল হয়ে যায়। সাংবাদিক মহিম মিজান আবৃত্তি করার পাশাপাশি কয়েকটি স্থিরচিত্র দিয়ে একটি ভিডিও তৈরি করেন। ভিডিওটি গত ২১ এপ্রিল তিনি ফেইসবুক পেইজে পোস্ট করেন।

ভাইরাল হওয়া সেই আবৃত্তির ভিডিও তৈরির গল্প রাইজিংবিডিকে শুনিয়েছেন মহিম মিজান। তিনি বলেন, ‘করোনার এই দুর্যোগে টানা অফিস করছি। হঠাৎ কবিতাটি নজরে পড়ে। ভালো লাগার কারণে কাজের ফাঁকে অফিসের স্টুডিওতে কবিতাটি রেকর্ড করি। সম্পাদনার কাজও অফিসের প্যানেলে করেছি। কবিতাটি এই সময়কে চমৎকারভাবে ধারন করেছে, যে কারণে মানুষ মুগ্ধ হয়ে শুনছে।’

মহামারির এই সংকটে বর্তমান বাস্তবতা তুলে ধরার জন্য কবিতাটি আবৃত্তি করেন মহিম মিজান। তার ভাষায়— ‘বাণিজ্যিক কোনো উদ্দেশ্যে আবৃত্তি করিনি। কবিতার কথাগুলো; প্রতিটি শব্দ, এই সময়ের দাবি মেটাচ্ছে।’

এদিকে স্বেচ্ছা ঘরবন্দি কবি শাহীন রেজা রাসেল। তিনি কবিতা লেখার প্রেক্ষাপট বর্ণনা করে বলেন, ‘সমসাময়িক ঘটনা আমার ভেতরে প্রতিক্রিয়া তৈরি করে। এই কবিতা সেই প্রতিক্রিয়ার প্রতিফলন। পৃথিবীর বিভিন্ন দেশ প্রতিরক্ষা ব্যবস্থায় হাজার হাজার কোটি ডলার ব্যয় করেছে। এই প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা আজ কোনো কাজেই লাগছে না। এই প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা মানবজাতিকে রক্ষার উদ্দেশ্যে নয়, ধ্বংসের জন্য তৈরি করা হয়েছে। কারণ এগুলো সবই মারণাস্ত্র!’

বিশ্বের পরাশক্তি দেশগুলোর উদাহরণ টেনে শাহীন রেজা রাসেল বলেন, ‘তারাও আজ লড়াই করছে। অথচ তারা রণতরী, ফাইটার বিমান যে অর্থ ব্যয় করে তৈরি করেছিল, সেই অর্থ দিয়ে মানবকল্যাণে অনেক কিছু করা যেত। কিন্তু তারা সেদিকে দৃষ্টি দেয়নি। একটি ক্ষুদ্র ভাইরাস মানবজাতিকে এতটা অসহায় করে দিলো- ভাবা যায়!’

কবি মনে করেন, অস্ত্র বৈশ্বিক আবর্জনা ছাড়া কিছু নয়। এখন পৃথিবীতে যদি হাজার হাজার ভালো হাসপাতাল থাকতো, মানুষের যদি ক্ষুধা-দারিদ্র না থাকতো তাহলে আক্রান্ত এবং মৃত্যুর সংখ্যা কম হতো। ভবিষ্যতে দুর্ভিক্ষের আশঙ্কা থাকতো না। এই সম্মিলিত ভাবনা কবিতায় ফুটে উঠেছে।

ছড়া লেখার মধ্য দিয়ে শাহীন রেজা রাসেলের কাব্যভুবনে প্রবেশ। ২০০৮ সালে অমর একুশে গ্রন্থমেলায় প্রকাশিত হয় তার প্রথম কাব্যগ্রন্থ ‘ছায়ানারী’। তার পাঁচটি কবিতার বই প্রকাশিত হয়েছে।

দেখুন:

Check Also

রাতে জাতিসংঘে ভাষণ দেবেন প্রধানমন্ত্রী

নিউজ ডেস্ক : প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আজ শনিবার (২৬ সেপ্টেম্বর) নিউইয়র্কে জাতিসংঘ সাধারণ পরিষদের (ইউএনজিএ) …

%d bloggers like this: