Home / জাতীয় / ব্যাংক পরিচালনায় পরিচালক থাকতে পারবেন একই পরিবারের চারজন

ব্যাংক পরিচালনায় পরিচালক থাকতে পারবেন একই পরিবারের চারজন

নিউজ ডেস্ক: ব্যাংক পরিচালনায় একই পরিবারের দু’জন পরিচালকের স্থলে চারজন পরিচালক থাকার বিধান যুক্ত করে বিদ্যমান ব্যাংক-কোম্পানী আইন সংশোধন বিল সংসদে উত্থাপিত হয়েছে।

মঙ্গলবার রাতে জাতীয় সংসদ অধিবেশনে ‘ব্যাংক-কোম্পানী (সংশোধনী) বিল-২০১৭’ নামের এই বিলটি উত্থাপন করেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত।

ডেপুটি স্পিকার অ্যাডভোকেট মো. ফজলে রাব্বী মিয়ার সভাপতিত্বে শুরু হওয়া সংসদ অধিবেশনে বিলটি উত্থাপনের বিরোধীতা করেন জাতীয় পার্টির সংসদ সদস্য ফখরুল ইমাম। তবে তার বিরোধীতা করলেও তা কণ্ঠভোটে নাকচ হয়ে যায়। পরে পরীক্ষা-নিরীক্ষা করে আগামী দুই মাসের মধ্যে সংসদে রিপোর্ট প্রদানের জন্য বিলটি অর্থ মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটিতে পাঠানো হয়েছে।

বিলটির বিরোধীতা করে জাতীয় পার্টির ফখরুল ইমামের বক্তব্যের জবাবে অর্থমন্ত্রী বলেন, ব্যাংক পরিচালিত হয় কোম্পানী আইনে। ১৯৯১ সাল থেকে শুরু করে এ পর্যন্ত ১৭ বছরে দেশের অর্থনীতিতে ব্যাপক পরিবর্তন হয়েছে। অকল্পনীয় পরিবর্তন বলা যেতে পারে। এখন কত অঙ্কের টাকা বিশাল বা কত অঙ্কের টাকা ছোট সেই হিসাব এখন বদলে গেছে।

তিনি বলেন, আগে একটি ব্যাংক করতে মুলধন লাগতো মাত্র ৮ কোটি টাকা, এখন লাগে ৪শ’ কোটি টাকা। আর আগেও ব্যাংক পরিচালিত হতো পারিবারিক উদ্যোক্তাদের দিয়েই।

প্রস্তাবিত বিলে তিনটি সংশোধনী আনা হয়েছে। পরিচালকরা ধারাবাহিকভাবে টানা নয় বছর পরিচালক পদে থাকতে পারবেন বলে বিধান রাখা হয়েছে। এছাড়া এই বিলে ব্যাংকের প্রথম পর্ষদের মেয়াদ এক বছরের বিদ্যমান বিধান এবং প্রতিবছর এক-তৃতীয়াংশ পরিচালকের পদত্যাগের বাধ্যবাধকতাও তুলে দেওয়ার প্রস্তাব করা হয়েছে। আগে কোনো ব্যক্তি কোনো ব্যাংক-কোম্পানীর পরিচালক পদে একাধিক্রমে নয় বছরের বেশি থাকতে পারবেন না বলে একটি ধারা ছিল। সেখানে বলা হয়েছিল সেই মেয়াদ শেষ হওয়ার পর তিন বছর অতিবাহিত না হলে তিনি উক্ত ব্যাংক-কোম্পানীর পরিচালক পদে পুনঃনিযুক্ত হবার যোগ্য হবেন না। উত্থাপিত বিলে সেই ধারা উঠিয়ে দেওয়ারও প্রস্তাব করা হয়েছে।

বিলটি উদ্দেশ্য ও কারণ সম্বলিত বিবৃতিতে বলা হয়েছে, কোনো পরিবারের সদস্যদের মধ্যে যদি কেউ আলাদাভাবে ব্যবসা পরিচালনা করেন এবং নিজেই করদাতা হন তাহলে তাকে পরিবারের উপর নির্ভরশীল বলা যায় না। বর্তমান বিধানে একক পরিবার থেকে পরিচালক পদে নিয়োগযোগ্য সদস্য সংখ্যা দুইজনে সীমিত থাকায় এরকম সদস্যদের পরিচালক হওয়ার সুযোগ সীমিত। একক পরিবার থেকে সর্বোচ্চ দুই জনের স্থলে চারজনকে সুযোগ দেয়া হলে এ সমস্যা অনেকাংশে দূরীভূত হবে। এছাড়া নতুন প্রতিষ্ঠিত ব্যাংকগুলোর সমস্যা বিবেচনায় নিয়ে সকল ক্ষেত্রেই যাতে ধারাবাহিকভাবে সর্বোচ্চ নয় বছর পর্যন্ত পরিচালক পদে থাকার সুযোগ সৃষ্টি হয়, সেই লক্ষ্যে সংশোধনী প্রস্তাব করা হয়েছে।

বিএসইসি’র বার্ষিক প্রতিবেদন উপস্থাপনঃ এদিকে অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত সংসদে বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ ও এক্সচেঞ্জ কমিশনের (বিএসইসি) বার্ষিক প্রতিবেদন- ২০১৫-১৬ উপস্থাপন করেছেন। এছাড়া সংসদে ৬৬টি অডিট রিপোর্ট ও ১৩টি হিসাব রিপোর্টসহ মোট ৭৯টি অডিট ও হিসাব রিপোর্টও উপস্থাপন করেন তিনি।

Check Also

রাতে জাতিসংঘে ভাষণ দেবেন প্রধানমন্ত্রী

নিউজ ডেস্ক : প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আজ শনিবার (২৬ সেপ্টেম্বর) নিউইয়র্কে জাতিসংঘ সাধারণ পরিষদের (ইউএনজিএ) …

%d bloggers like this: