Breaking News
Home / জাতীয় / বেশির ভাগ রুটেই চলছে না দূরপাল্লার বাস

বেশির ভাগ রুটেই চলছে না দূরপাল্লার বাস

নিউজ ডেস্ক: করোনার কারণে সারাদেশে ২৭ মার্চ (বৃহস্পতিবার) থেকে অনির্দিষ্টকালের জন্য গণপরিবহন বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার। ওই সিদ্ধান্তের পর মঙ্গলবার বিকেল থেকেই দেশের সব নৌ-রুটের নৌযান বন্ধ রাখা হয়েছে। এরই ধারাবাহিকতায় বুধবার (২৫ মার্চ) ঢাকা থেকে দেশের বেশিরভাগ রুটেই দূরপাল্লার বাস যায়নি।

খোঁজ নিয়ে যানা গেছে, রাজধানীর গুলিস্তান ও সায়েদাবাদ থেকে বরিশাল, খুলনা, পিরোজপুর, বাগেরহাট, পটুয়াখালী, জালকাঠীর উদ্দেশে কোনো বাস ছেড়ে যায়নি।

জানতে চাইলে ঢাকা-গোপালগঞ্জ-পিরোজপুর রুটের ইমাদ পরিবহনের ম্যানেজার মোহাম্মদ আলামিন বলেন, ‘আজ সকাল থেকে আমাদের কোনো বাস ছেড়ে যায়নি। কারণ মাওয়ায় কোনো লঞ্চ চলাচল করছে না। তাই মালিকপক্ষ আজ থেকেই বাস বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছে।’

মহাখালী বাস টার্মিনালে গিয়ে দেখা গেছে, সিলেট, জামালপুর, রংপুর, টাঙ্গাইল, বগুড়া, শেরপুর, ঝিনাইগাতি রুটের কিছু কিছু বাস চলাচল করছে। কিছুক্ষণ পর পর যাত্রী নিয়ে রাজধানী ছেড়ে যাচ্ছে বাসগুলো।

এনা পরিবহনের ম্যানেজার মোহাম্মদ মিজানুর রহমান বলেন, ‘১০ দিনের সাধারণ ছুটি ঘোষণার পর গত দুই দিন ধরে যাত্রীদের প্রচণ্ড চাপ যাচ্ছে। আজ সকাল থেকেই আমাদের কোম্পানির কিছু বাস সিলেট, জামালপুর, ময়মনসিংয়ে উদ্দেশে ছেড়ে গেছে। যাত্রী থাকলে আজ রাতেও যাবে।’

এদিকে সকাল থেকেই রাজধানীতে গণপরিবহন চলাচল করেছে স্বাভাবিকভাবেই। অন্য সাধারণ দিনের মতোই গণপরিবহন চলাচল করতে দেখা গেছে। তবে গণপরিবহন থাকলেও যাত্রীর সংখ্যা খুবই কম।

এই প্রসঙ্গ রাজধানীর মোহাম্মদপুর থেকে মতিঝিল রুটে চলাচল করা সিটি বাসের ড্রাইভার মোহাম্মদ হান্নান মিয়ার সঙ্গে। তিনি বলেন, ‘করোনার কারণে সবার মধ্যে একটা আতঙ্ক সৃষ্টি হয়েছে। আমরা যারা বাস চালাই, তাদের মনেও ভয় আছে। কিন্তু পেটের টানে ঝুঁকি নিয়ে গাড়ি চালাতে হচ্ছে।’ তিনি আরও বলেন, ‘আগামীকাল থেকে সব পরিবহণ বন্ধ থাকবে। তাই আজ শেষবারের মতো গাড়ি নিয়ে বের হয়েছি। কিন্তু যাত্রী নেই। ঢাকা একদম খালি। ছুটি পেয়ে সবাই গ্রামের বাড়ি চলে গেছে।’

উল্লেখ্য, মঙ্গলবার (২৪ মার্চ)এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, ‘করোনার সংক্রমণ প্রতিরোধে ২৬ মার্চ থেকে ৪ এপ্রিল পর্যন্ত সারাদেশে গণপরিবহন, যাত্রীবাহী লঞ্চ, যাত্রীবাহী ট্রেন চলাচল বন্ধ থাকবে।’

তবে, ট্রাক, কাভার্ডভ্যান, ওষুধ, জরুরি সেবা, জ্বালানি, পচনশীল পণ্য পরিবহন এ নিষেধাজ্ঞার বাইরে থাকবে। এছাড়া পণ্যবাহী যানবাহনে কোনো যাত্রী পরিবহন করা যাবে না বলেও সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে উল্লেখ করা হয়।

Check Also

ফুটপাতের পুলিশ বক্স গুঁড়িয়ে দিলেন ভ্রাম্যমাণ আদালত

নিউজ ডেস্ক  :  রাজধানীর উত্তর সিটিতে অবৈধ সাইনবোর্ড, বিলবোর্ড উচ্ছেদ করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার (১৭ সেপ্টেম্বর) …

%d bloggers like this: