Home / বিনোদন / টালিউড / প্রাণী প্রেম, হেনস্তার শিকার শ্রীলেখা

প্রাণী প্রেম, হেনস্তার শিকার শ্রীলেখা

নিউজ ডেস্ক: ‘দুমুঠো চালের গুরুত্ব একটা মানুষের জীবনে কতটা হতে পারে তা হাড়ে হাড়ে টের পাচ্ছি। এই পরিস্থিতিতে রসালো রান্না-বান্নার ভিডিও দেখতে ভালো লাগছে না। আমাকে এখন রেশন করে চলতে হচ্ছে। রোজ দুবেলা করে ২০-২৩ টি কুকুরকে খাওয়াচ্ছি। আমার এখন চালের রেশনে টান পড়েছে। জানি না আর ৩-৪ দিন পর কুকুরগুলোকে খাওয়াতে পারব কিনা। আমি সকালের নাস্তা করছি না। দুবেলা খাচ্ছি, যাতে কুকুরগুলো খেতে পায়। নিজেকে বোঝাচ্ছি এতে করে শ্রীলেখা তোমার ডায়েট হচ্ছে’—এক ভিডিওতে কথাগুলো বলতে বলতে টলিউড অভিনেত্রী শ্রীলেখা মিত্রর চোখ ভিজে উঠতে দেখা যায়।

করোনাভাইরাস ছড়িয়ে পড়ার কারণে ভারত ২১ দিনের জন্য লকডাউন করা হয়েছে। এতে বিত্তবানদের খুব একটা অসুবিধা না হলেও থমকে যাচ্ছে দৈনিক মজুরিতে কাজ করা নিম্ন আয়ের মানুষের জীবন। সেই সঙ্গে রাস্তায় থাকা কুকুরগুলো অনাহারে ঘুরছে। আর এ বিষয় সহজভাবে নিতে পারছেন না শ্রীলেখা। তাই নিজ উদ্যোগে রাস্তার কুকুরদের খাবারের ব্যবস্থা করেছেন এই অভিনেত্রী। কিন্তু শ্রীলেখার এসব কর্মকাণ্ড ভালোভাবে নিচ্ছেন না তার কমপ্লেক্সের পড়শিরা।

শ্রীলেখার ভাষায়—আমি একটি কমপ্লেক্সে থাকি। গত সেপ্টেম্বরে এই কমপ্লেক্সে উঠেছি। এটাকে বড়লোকদের বস্তি বলব। তারা মনে করে, কমপ্লেক্স মানে সেখানে বাইরের কোনো কুকুর আসতে পারবে না। আসার পর থেকে পড়শিদের সঙ্গে এসব নিয়ে লেগেই আছে। আমার সঙ্গে কেউ কথা বলে না। আমাকে অশান্তিতে রাখার নানা পরিকল্পনা করছে তারা।

এদিকে সোসাইটির যে নিরাপত্তাক্ষী রয়েছেন, তাদের জন্য চা থেকে সবকিছুর ব্যবস্থা করছেন শ্রীলেখা। কিন্তু সোসাইটির মানুষ এতটা অমানবিক যে ওই নিরাপত্তারক্ষীদের কথা কেউ-ই একবারের জন্যও ভেবে দেখেন না। এসবের পাশপাশি বেশ কয়েকজন সাংসদের আচরণ নিয়েও ক্ষেপে যান তিনি। এছাড়া কুকুরদের খাওয়ানোর বিষয়ে আর কেউ কথা বললে কাউকে ছেড়ে দেবেন না বলেও ভিডিওতে হুশিয়ারি উচ্চারণ করেন শ্রীলেখা।

 

Check Also

সাজিদ-ওয়াজিদ জুটির ওয়াজিদ আর নেই

নিউজ ডেস্ক: কিংবদন্তি দুই অভিনেতা ইরফান খান ও ঋষি কাপুরের মৃত্যুর মাস না গড়াতেই আবারও শোকস্তব্ধ …

%d bloggers like this: