Home / খেলাধুলা / নেইমারকে ছাড়াই নিসকে উড়িয়ে দিল পিএসজি

নেইমারকে ছাড়াই নিসকে উড়িয়ে দিল পিএসজি

স্পোর্টস ডেস্ক: লাল কার্ড দেখে এক ম্যাচ নিষিদ্ধ হওয়া নেইমারকে ছাড়াই নিসকে সহজেই হারাল প্যারিস সেইন্ট জার্মেই (পিএসজি)। এই জয়ে কোনো বেগ পেতে হয়নি ফরাসি জায়ান্টদের। নেইমারের ‘ঘরের শত্রু’ বলে খ্যাত এডিনসন কাভানির ২ গোলে উনাই এমেরির দল ঘরের মাঠ পার্ক ডি প্রিন্সেসে ৩-০ গোলে জয়ী হয়েছে। এই জয়ে ১০ ম্যাচে ২৯ পয়েন্ট নিয়ে দ্বিতীয় স্থানে থাকা বর্তমান চ্যাম্পিয়ন মোনাকোর থেকে ৭ পয়েন্ট এগিয়ে গেল তারা। চলতি মৌসুমে অপরাজিত পিএসজির এটি নবম জয়।

ফরাসি লিগ ওয়ানের শুক্রবারের ম্যাচে প্রথমার্ধেই কাভানি ২ গোল করেন। দুটি গোলেই সহযোগিতা করেছেন আর্জেন্টাইন তারকা অ্যাঞ্জেল ডি মারিয়া। আগস্টের পরে এই নিয়ে মাত্র দ্বিতীয় ম্যাচে ডি মারিয়া নেইমারের স্থানে মূল একাদশে সুযোগ পেয়েছিলেন। এমেরির বিবেচনায় মারকুইহোসের স্থানে সেন্টার ব্যাক হিসেবে প্রিসনেল কিমপেমবে ও লেভিন কুরজাওয়ার স্থানে স্প্যানিশ লেফট-ব্যাক ইউরি বারচিচ মাঠে নেমেছিলেন। রাইটব্যাক ডানি আলভেস দলে ফিরলেও অভিজ্ঞ থিয়াগো মোত্তা হাঁটুর সমস্যার কারনে মাঠের বাইরে ছিলেন।

অন্যদিকে সফরকারীদের হয়ে মারিও বালোতেল্লি মূল একাদশে ফিরেছেন। গত সপ্তাহে স্টাসবোর্গের বিপক্ষে ২-১ গোলের হতাশাজনক পরাজয়ের ম্যাচটিতে তিনি ইনজুরির কারনে অনুপস্থিত ছিলেন। অনুশীলনে ইনজুরিতে পড়ায় শেষ মুহূর্তে গোলকিপার ইয়োয়ান কারডিনালের স্থানে ওয়াল্টার বেনিটেজকে মাঠে নামাতে বাধ্য হন নিস কোচ লুসিয়েন ফাভরে।

ম্যাচের তিন মিনিটের মধ্যেই ডি মারিয়ার ফ্রি-কিক থেকে আর্জেন্টাইন গোলকিপারের পরীক্ষা শুরু হয়। যদিও গোলপোস্টের খুব কাছ থেকে কাভানির নীচু হেড আটকানোর সামর্থ্য ছিলনা বেনিটেজের। ৩১ মিনিটে ডি মারিয়ার ফ্লিক থেকে ব্যবধান দ্বিগুন করেন। এটি ছিল উরুগুয়ের তারকার ৯৯ তম লিগ ওয়ান গোল। ৫২ মিনিটে আলভেসের প্রচেষ্টার নিস অধিনায়ক দাতের কল্যাণে জালে জড়ালে আত্মঘাতি গোল হজম করে নিস।

মার্সেইর বিপক্ষে ম্যাচে লাল কার্ড পাবার কারণে লিগে এক ম্যাচ নিষিদ্ধ হন নেইমার। সে কারণেই গতকালের ম্যাচটি স্ট্যান্ডে বসে দর্শক হিসেবে দেখতে বাধ্য হয়েছেন ব্রাজিলিয়ান সুপারস্টার। পিএসজিতে যাওয়ার পর এই নিয়ে দুই ম্যাচ মাঠের বাইরে থাকতে হলো তাকে। এই জয়ে চ্যাম্পিয়নস লিগে মঙ্গলবার অ্যান্ডারলেখের বিপক্ষে ম্যাচের আগে দারুণ একটি অনুশীলনও সেরে ফেলেছে এমেরির শিষ্যরা। অ্যান্ডারলেখকে হারাতে পারলেই পিএসজির শেষ ১৬ নিশ্চিত হবে।

ম্যাচ শেষে কাভানি বলেছেন, ‘প্রতিটি ম্যাচই ভিন্ন। মার্সেইর বিপক্ষে ম্যাচটা আরো বেশী কঠিন ছিল। কারণ ওখানকার মাঠ ভিন্ন, একইসাথে স্বাগতিক হিসেবে তারা দারুণ খেলেছে। আজ আমরা ম্যাচের শুরুতে দ্রুত গোলের লক্ষ্যে মাঠে নেমেছিলাম। লক্ষ্য পূরণ হওয়ায় বাকি সময়টা ভালো কেটেছে। ‘

Check Also

গার্দিওয়ালার অধীনে আবারও যাবেন মেসি?

নিউজ ডেস্ক  : নির্ঘুম রাত কাটছে মেসি ভক্তদের। ক্লাবের সবচেয়ে বড় তারকা যে আনুষ্ঠানিক জানিয়ে …

%d bloggers like this: