Home / জাতীয় / দ্বিগুণের বেশি বন্দি টাঙ্গাইল কারাগারে

দ্বিগুণের বেশি বন্দি টাঙ্গাইল কারাগারে

নিউজ ডেস্কঃ ধারণক্ষমতার দ্বিগুণেরও বেশি বন্দি টাঙ্গাইল জেলা কারাগারে। ধারণক্ষমতা ৪৭৬ জন থাকলেও বর্তমানে বন্দি রয়েছেন এক হাজার ৮৪ জন।

অধিক বন্দি থাকায় সাম্প্রতিক সময়ে ছড়িয়ে পড়া করোনাভাইরাসের ঝুঁকিতে আছে এই কারাগার। তারপরও বন্দিদের নিরাপত্তায় প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে কারা কর্তৃপক্ষ।

করোনার কারণে কারা অধিদপ্তর স্বল্পমেয়াদে সাজাপ্রাপ্ত বেশকিছু বন্দি মুক্তি দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। এ লক্ষ‌্যে কারা কর্তৃপক্ষ স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে ২৪০ জন বন্দির তালিকা পাঠিয়েছে। জেল সুপার মোহাম্মদ আবদুল্লাহ আল মামুন এ তথ‌্য নিশ্চিত করেছেন।

এই কারাগারে জেল অফিস, স্টাফ কোয়ার্টার ছাড়াও তিনটি বন্দিশালা রয়েছে। প্রতিদিনই এখানে নতুন বন্দি আসেন, আবার অনেকেও অন্য কারাগারে স্থানান্তরিত হন। এই বন্দির বিপরিতে কারাগারে বিভিন্ন পদে কর্মকর্তা-কর্মচারী রয়েছে ১৫৭ জন। ভেতরে বন্দিদের চিকিৎসার জন্য রয়েছে একটি কারা হাসপাতাল। এর শয্যা সংখ্যা মাত্র ২৪ টি। নারী বন্দিদের জন্য মাত্র একটি ওয়ার্ড। সেখানে বন্দি আছেন ৪০ জন। অনান্য ওয়ার্ড ছাড়াও কন্ডেম সেল রয়েছে চারটি।

জেল সুপার মোহাম্মদ আবদুল্লাহ আল মামুন রাইজিংবিডিকে বলেন, ‘সারা বিশ্বের জন্যই করোনা এখন হুমকি। এটি মোকাবিলায় প্রথম প্রয়োজন সামাজিক দূরত্বের। কিন্তু যেহেতু এমনিতেই আমাদের ধারণক্ষমতার অনেক বেশি বন্দি রয়েছে। আর তাদের বন্দিশালাতে অনেকটাই গাদাগাদি করে থাকতে হয়, সেই হিসেবে তারা করোনা ঝুঁকিতে রয়েছেন। তারপরও আমরা আমাদের সাধ্যমতো তাদের নিরাপদ রাখার চেষ্টা করছি।’

‘কারাগারের ভিতরে থাকা ছোট হাসপাতালটিতেই আমরা চিকিৎসা দেওয়ার ব্যবস্থা করেছি। সেখানে আইসোলেশনও রাখা হয়েছে। যদি বন্দিদের মধ্যে কোনোভাবে করোনা ছড়িয়ে পড়ে, তবে যে কয়জনকে আইসোলেশনে রাখা সম্ভব হবে আমরা তাদের রাখব। তারপরও স্থান সঙ্কুলান না হলে বাধ্য হয়ে অন্য জায়গায় স্থানান্তরিত করতে হবে। তারপরও স্থান সঙ্কুলানের জন্য তারা ঝুঁকিতে থাকছেন। তবে নতুন একটি পাঁচ তলা ভবন নির্মাণের কাজ চলছে। সেটি শেষ হলে ধারণক্ষমতার সমস্যা কেটে যাবে।’

 

Check Also

রাতে জাতিসংঘে ভাষণ দেবেন প্রধানমন্ত্রী

নিউজ ডেস্ক : প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আজ শনিবার (২৬ সেপ্টেম্বর) নিউইয়র্কে জাতিসংঘ সাধারণ পরিষদের (ইউএনজিএ) …

%d bloggers like this: