Home / দেশজুড়ে / ত্রিশালে গৃহায়ণ ও গণপূর্ত প্রতিমন্ত্রীর সহায়তা প্রদান

ত্রিশালে গৃহায়ণ ও গণপূর্ত প্রতিমন্ত্রীর সহায়তা প্রদান

মমিনুল ইসলাম মমিন: ময়মনসিংহের ত্রিশালে গৃহায়ণ ও গণপূর্ত মন্ত্রণালয় প্রতিমন্ত্রী শরীফ আহমেদ এম.পি মহান মে দিবস উপলক্ষে বিভিন্ন পেশাজীবি শ্রমিকদের মাঝে খাদ্য সহায়তা প্রদান করেন।

“আতংকিত নয় সচেতন হলে, করোনা ভাইরাস থেকে মুক্তি মিলে” এ শ্লোগানকে সামনে রেখে (১ মার্চ) শুক্রবার বিকেল ৫ টার সময় মহান মে দিবস উপলক্ষে বিভিন্ন পেশাজীবি শ্রমিকদের মাঝে ত্রিশালের ঐতিহ্যবাহী সরকারী নজরুল কলেজ মাঠে খাদ্য সহায়তা প্রদান করা হয়।

গৃহায়ণ ও গণপূর্ত মন্ত্রণালয় প্রতিমন্ত্রী শরীফ আহমেদ এম.পি এসময় বলেন, মহান মে দিবসে সারা বাংলাদেশে করোনা ভাইরাসের প্রাদুর্ভাবে অন্যান্য বৎসরের তুলনায় এ বছর পালন করতে পারছি না। আজকে আপনারা সকলে কর্মহীন হয়ে পড়েছেন, সকলেই সরকারের নির্দেশনা মেনে চলবেন, স্বাস্থ্য বিধি মেনে চলবেন, সামাজিক দূরুত্ব বজায় রাখবেন। করোনা ভাইরাসকে জয় করতে হবে, শেখ হাসিনার নেতৃত্বেই আমারা সুরক্ষা থেকে স্বাস্থ্য বিধি মেনে করোনার মত ভয়ানক এ ভাইরাসকে মোকাবেলা করবো, যেমন ভাবে জাতীর জনক বঙ্গবন্ধুর নেতৃত্বে স্বাধীনতাকে ছিনিয়ে এনেছিলাম। সচেতনাতবোধ নিজের মধ্যে ধারন করে নিজেকে সুরক্ষা রেখে আমরা জননেত্রীর শেখ হাসিনার নেতৃত্বে জয় লাভ করে বিজয়ের পতাকা বাংলার মাটিতে উড়াবো, এই বিশ্বস রেখে, আল্লাহর উপর ভরসা রেখে, এই মেহনতি মানুষের কর্মে আবার কর্ম চাঞ্চল্য হয়ে উঠবে এদেশে মাটি, এদেশের মানুষ। আপনারা যারা নিম্ন আয়ের মানুষ আছেন তারা যেন এ ভাইরাস থেকে সুরক্ষা থাকতে পারেন তারই জন্য আমরা পাশে আছি।

ধর্ম বিষয়ক মন্ত্রনালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি ও ময়মনসিংহ-৭ ত্রিশাল আসনের সংসদ সদস্য আলহাজ্ব হাফেজ মাওলানা রুহুল আমি মাদানী মহান মে দিবসের শুভেচ্ছা জানিয়ে বলেন, এটি আমাদের ঐতিহ্যবাহী দিন। বর্তমান দেশের পরিস্থিতি করোনা ভাইরাসের কারনে উদ্বিগ্ন, সারাবিশ্বের মানুষ আতঙ্কে বসবাস করছে। প্রতিনিয়ত করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হচ্ছে এবং মৃত্যুবরণ করছে। প্রতিটি দেশ চেষ্টা করছে কিভাবে এ করোনা ভাইরাস মোকাবেলা করা যায়। বিভিন্ন দেশের সরকার লকডাউন ঘোষনা করে সামাজিত দূরুত্ব নিশ্চি কারে এ ভাইরাস প্রতিরোধ কারার চেষ্টা করছে। করোনা ভাইরাস একটি ছোঁয়াচে রোগ, একজনের শরীর থেকে অন্য জনের শরীরে ছড়ায়। আমাদের দেশে মিল ফ্যাক্টরি বন্ধ, যানবাহন বন্ধ ও মানুষ গৃহবন্ধি তাই মধ্যবিত্ত, কর্মহীন, অসহায় লোকেদের খাবার সংগ্রহ করা কঠিন হয়ে পরেছে।

আপনারা জানেন বর্তমান সরকারের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী মমতাময়ী জননী জননেত্রী শেখ হাসিনা সারা বাংলাদেশে এই কর্মহীন হতদরিদ্রদের জন্য অনেক সাহায্য ও উপহার পাঠিয়েছেন। উপজেলা প্রশাসন, ইউপি চেয়ারম্যান, ভলান্টিয়ার ও আমাদের দলীয় নেতা-কর্মীদের পরামর্শক্রমে সেগুলো পরিচালিত হচ্ছে। আপনারা জানেন ত্রিশাল প্রায় সাড়ে চার লক্ষ মানুষ বসবাস করে। যখন কাজ-কর্ম সবকিছু বন্ধ, তখন সবাই গরীব, সবাই কর্মহীন তাই সরকারী সাহায্য অপ্রতুল। আমি আমার এলাকার বৃত্তবানদের কাছে আবেদন করেছিলাম এগিয়ে আসার জন্য। তিনি আরও বলেন আমি আপনাদের প্রতিনিধি, আপনাদের ভোটে নির্বাচিত তাই আমার নিজ উদ্দ্যোগে কিছু উপহার দেওয়ার জন্য ব্যবস্থা নিয়েছি। এর মধ্যে পৌর এলাকার ৯টি ওয়ার্ডে উপহার দিয়েছি। ত্রিশাল উপজেলার ১২টি ইউনিয়নে দু’এক দিনের মধ্যে পৌছে যাবে আমার এ উপহার।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোস্তাফিজুর রহমান বলেন, আজ মহান মে দিবস, অন্যান্য বছরের থেকে এবার ব্যতিক্রম ভাবে পালিত হচ্ছে। সারা বিশ্বের শ্রমিকবৃন্দের জন্য এটি আনন্দের মুহুর্ত কিন্তু এবার দুঃখের মধ্য দিয়ে এ দিবসটি পালিত হচ্ছে। শুধু বাংলাদেশ নয় সারা বিশ্ব এ দূর্যোগের মধ্যে আছে। এমন একটি সময়ে মে দিবসটি পালিত হচ্ছে। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী প্রতিনিয়তই এদেশের মানুষ যারা কষ্ট পাচ্ছে তাদের পাশে যেন সকল রাজনীতিবীদ দল-মত নির্বিশেষে পাশে দাড়ায় সেই নির্দেশনা প্রতিনিয়তই দিয়ে যাচ্ছেন। আপনারা হতাশ হবেন না, আপনার এই ত্রিশালে যেমন সকলকে পাশে পাচ্ছেন, সারাদেশ ব্যাপি আপনাদের শ্রমিক বন্ধুদের পাশে এই সরকার থাকবে। আপনারা সকলে মহান শ্রষ্ঠার কাছে প্রার্থণা করেন যেন আমরা এই দূর্যোগ কাটিয়ে উঠতে পারি, তাহলে আপনারা সকলে কাজে ফিরে যেতে পারবেন। সবার সচল হাত আবার সচল হবে, এদেশের অর্থনীতি আবারও চাঙ্গা হবে। আমরা শুভদিনের অপেক্ষায় আছি।

Check Also

টানা বৃষ্টিতে বিপর্যস্ত পিরোজপুরবাসী, বিপাকে শ্রমজীবী মানুষ

নিউজ ডেস্ক : বিগত কয়েক দিনের অপ্রত্যাশিত বৃষ্টিতে বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছে পিরোজপুরের মানুষের জীবনযাত্রা। আর …

%d bloggers like this: