Home / দেশজুড়ে / তিন ‘জিনের বাদশা’ ধরা

তিন ‘জিনের বাদশা’ ধরা

দেশজুড়ে ডেস্ক:  মোবাইল ফোনে জিনের বাদশা, পীর-দরবেশ বা সাধু সন্ন্যাসী সেজে লটারির লোভ বা ভয় দেখিয়ে অর্থ আদায়কারী জিনের বাদশা নামের প্রতারক চক্রের তিন সদস্যকে আটক করেছেন র‌্যাব ৮ মাদারীপুর ক্যাম্পের সদস্যরা। এ সময় স্বর্ণ বলে প্রচারিত ২২টি পিতলের সরঞ্জাম, দুইটি ল্যাপটপ, ২৩টি মোবাইল ফোন, ৮১টি সিম কার্ড ও চার লাখ ৭৮ হাজার ৪০০ টাকা, বিভিন্ন ব্যাংকের চেক জব্দ করা হয়। ফরিদপুরের ভাঙ্গা উপজেলার বটতলা এলাকা থেকে গতকাল রবিবার রাতে তাদেরকে আটক করা হয়।আটককৃতরা হলেন ফরিদপুরের ভাঙ্গা উপজেলার চতলারপাড় গ্রামের রাসেল মিয়া (২১) ও একই গ্রামের শাকিল মাতুব্বর (১৬) এবং উপজেলার পাতরাইল গ্রামের সামসু মাতুব্বর (৩৫)।

আজ সোমবার দুপুরে র‌্যাব ৮ মাদারীপুর ক্যাম্পের কম্পানি কমান্ডার মেজর মো. রাকিবউজ্জামান এক সংবাদ সম্মেলনে জানান, দীর্ঘদিন ধরে বিভিন্ন ব্যক্তির মোবাইলে কল দিয়ে জিনের বাদশা পরিচয় দেন এই চক্রের সদস্যরা। এমনকি কখনও সাধু সন্ন্যাসী সেজে বিভিন্ন রোগের চিকিৎসার কথা বলে প্রতারণার মাধ্যমে নারী ও সমাজের নিম্নআয়ের মানুষের কাছ থেকে অর্থ হাতিয়ে নিচ্ছেন তারা। এরপর যে মোবাইল থেকে কল করা হয়, সেটি স্থায়ীভাবে বন্ধ করে রাখে চক্রটির সদস্যরা।

মেজর মো. রাকিবউজ্জামান আরও জানান, বেশিরভাগ ক্ষেত্রে মানুষ যখন ঘুমে থাকে, গভীর রাতে এই চক্রের সদস্যরা নির্জন কোনও স্থানে গিয়ে ফোন করে টাকা হাতিয়ে নিয়ে ধোকা দেন। এমন প্রতারণার শিকার বেশ কয়েকজনের অভিযোগের ভিত্তিতে গত দুই মাস ধরে চক্রটিকে ধরতে কাজ শুরু করেন র‌্যাব ৮ মাদারীপুর ক্যাম্পের সদস্যরা। পরে রবিবার রাতে চক্রটির মূল হোতা রাসেল মিয়াসহ তিনজনেক আটক করা হয়।

আটককৃতরা প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে ঘটনায় জড়িত থাকার কথা স্বীকার করেছেন বলেও র‌্যাবের পক্ষ থেকে সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়েছে।
এতে আরও জানানো হয়, এই জিনের বাদশা প্রতারক চক্রের বাকি সদস্যদের ধরতে অভিযান অব্যাহত রয়েছে। আটককৃতদের ফরিদপুরের ভাঙ্গা থানায় মামলার পরে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

Check Also

এই সৌদি প্রবাসীদের কী হবে?

নিউজ ডেস্ক  : সৌদি আরবে নতুন করে বাংলাদেশ বিমানের ল্যান্ডিংয়ের অনুমতি না মেলায় জটিলতা কাটছে …

%d bloggers like this: