Home / জাতীয় / ঢাবি ক্যাম্পাসে বন্ধ হচ্ছে বড় গাড়ি প্রবেশ

ঢাবি ক্যাম্পাসে বন্ধ হচ্ছে বড় গাড়ি প্রবেশ

নিউজ ডেস্ক:  ক্যাম্পাসে শিক্ষার সুষ্ঠু পরিবেশ ও শৃঙ্খলা ফিরিয়ে আনতে ক্যাম্পাসে বাইরের যানবাহন চলাচলে নিয়ন্ত্রণের সিদ্ধান্ত নিয়েছে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়। নির্বিঘ্নে শিক্ষার্থীদের চলাচলে প্রাথমিকভাবে সবধরনের বড় গাড়ি প্রবেশ বন্ধ করবে। ইতোমধ্যে ক্যাম্পাসে বড় গাড়ি প্রবেশ বন্ধে কার্যকরী ব্যবস্থা নিতে ট্রাফিক পুলিশের সঙ্গে যোগাযোগ করেছে। প্রতিটি মোড়েও নিরাপত্তা প্রহরীর বসানোর সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। গত মঙ্গলবার কালের কণ্ঠের সঙ্গে আলাপকালে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর একেএম গোলাম রব্বানী এই তথ্য জানিয়েছেন।   শাহবাগ, নীলক্ষেত, পলাশী, বকশীবাজার, চাঁনখারপুল ও হাইকোর্ট দিয়ে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে প্রবেশ করা যায়। এই প্রবেশ পথ দিয়ে প্রতিনিয়ত ক্যাম্পাসের অভ্যন্তরে ঢুকছে গণ পরিবহন ও মালবাহী ভারী যানবাহনও। এতে ক্যাম্পাসের অভ্যন্তরে সৃষ্টি হচ্ছে তীব্র যানজট। বাঁধাগ্রস্থ হচ্ছে শিক্ষার্থীদের অবাধ চলাচল। নষ্ট হচ্ছে বিশ্ববিদ্যালয়ের সুষ্ঠ পরিবেশ। দূর্ঘটনার মতো ঘটনা ঘটছে।

গত ১৫ অক্টোবর প্রাইভেট কারের ধাক্কায় বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যের ছেলে ও পথচারীসহ ৩জন আহত হয়। প্রবেশ পথে নিয়ন্ত্রণ না থাকায় বহিরাগতদের আনাগোনা বেশি। একটু রাত হলেই ছিনতাইয়ের ঘটনাও ঘটে। বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসের ভিতর দিয়ে গণ পরিবহন বন্ধ করতে শিক্ষার্থীরা অনেক আগে থেকেই দাবি জানিয়ে আসছিলো। কিন্তু বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন এতদিন এ বিষয়ে কোনো ভ্রুক্ষেপ না করলেও সম্প্রতি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের সঙ্গে বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুয়েট) শিক্ষার্থীদের সংঘর্ষের ঘটনায় বুয়েটের শিক্ষার্থীদের দাবির প্রেক্ষিতে চানখাঁরপুল ও পলাশীকে যুক্ত করা রাস্তায় গণপরিবহন চলাচল বন্ধ করে দিয়েছে বুয়েট কর্তৃপক্ষ। এতে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসের ভেতর দিয়ে যাওয়া রাস্তায় গণপরিবহন বেড়ে যাওয়ায় যানজটের আরও তীব্রতা দেখা দিচ্ছে।

এ বিষয়ে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর এ কে এম গোলাম রব্বানী কালের কণ্ঠকে বলেন, ‘দীর্ঘদিন থেকেই ক্যাম্পাসে প্রবেশের পথগুলো অরক্ষিত। অবাধেই প্রবেশ করছে সবধরনের যানবাহন। এতে শিক্ষার সুষ্ঠু পরিবেশ নষ্ট হচ্ছে। রাজধানীর প্রাণকেন্দ্রে হওয়ায় ক্যাম্পাস দিয়ে সব গাড়ি প্রবেশ বন্ধ করা সম্ভব না। প্রাথমিকভাবে বড় গাড়ি প্রবে বন্ধ করা হবে। ইতোমধ্যে আমরা উদ্যোগ নিয়ে কাজ শুরু করেছি। ট্রাফিক পুলিশের সঙ্গে যোগাযোগ করেও কার্যকর ব্যবস্থা নিতে বলা হয়েছে। ’ তিনি বলেন, মানসম্মত লেখাপড়ার জন্য প্রয়োজন ক্যাম্পাসের সুষ্ঠু পরিবেশ। সুষ্ঠু পরিবেশ ছাড়া সুষ্ঠু জ্ঞান বা পাঠদান সম্ভব না। সুষ্ঠ পরিবেশ ও শিক্ষার্থীদের নিরাপত্তা বাড়াতে আইন-শৃঙ্খলাবাহিনীর সঙ্গেও আলোচনা হয়েছে।   এদিকে নিরাপদ ক্যাম্পাসের দাবিতে বুধবার সকালে বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে বিক্ষোভ করেছে একদল শিক্ষার্থী। মিছিলটি বিশ্ববিদ্যালয়ের হাকিম চত্ত্বর থেকে শুরু করে মধুর ক্যান্টিন হয়ে ক্যাম্পাস শ্যাডো হয়ে উপাচার্য অফিসের সামনে যায়। সেখানে উপাচার্যের সঙ্গে দেখা করে তাদের দাবির কথা জানালে উপাচার্য অধ্যাপক আখতারুজ্জামান দাবি মানার আশ্বাস দিলে তারা ফিরে আসেন। এসময় তারা প্রক্টর অফিসের সামনেও নিরাপদ ক্যাম্পাসের দাবিতে স্লোগান দেয়।

Check Also

রাতে জাতিসংঘে ভাষণ দেবেন প্রধানমন্ত্রী

নিউজ ডেস্ক : প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আজ শনিবার (২৬ সেপ্টেম্বর) নিউইয়র্কে জাতিসংঘ সাধারণ পরিষদের (ইউএনজিএ) …

%d bloggers like this: