Home / আর্ন্তজাতিক / জাতিসংঘ দলকে রাখাইনে যেতে দেয়নি মিয়ানমার

জাতিসংঘ দলকে রাখাইনে যেতে দেয়নি মিয়ানমার

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: মিয়ানমারের রাখাইন রাজ্যে রোহিঙ্গা মুসলমানদের ওপর হামলার স্থান পরিদর্শনের উদ্দেশ্যে জাতিসংঘের একটি সফর হঠাৎ বাতিল করে দিয়েছে দেশটির কর্তৃপক্ষ। গতকাল বৃহস্পতিবার জাতিসংঘের একটি প্রতিনিধিদলের এ সফরে যাওয়ার কথা ছিল।

মিয়ানমারে জাতিসংঘের আবাসিক সমন্বয়কারীর কার্যালয়ের একজন মুখপাত্র এ তথ্য জানিয়েছেন। মিয়ানমার দাবি করছে, ‘খারাপ আবহাওয়ার’ জন্য সফরটি বাতিল করা হয়েছে।

রাখাইনের উত্তরাঞ্চলে গত ২৫ আগস্ট রোহিঙ্গাদের ওপর নতুন করে জাতিগত নিধন শুরু হওয়ার পর এটাই হতো জাতিসংঘ কর্মকর্তাদের প্রথম কোনো সফর। ‘রোহিঙ্গা জঙ্গিদের’ ওপর যখন মিয়ানমার সেনাবাহিনী অভিযান শুরু করে, তখন রাখাইন থেকে জাতিসংঘ কর্মকর্তাদের রাখাইন এলাকা থেকে চলে যেতে বাধ্য করা হয়।

রোহিঙ্গাদের ওপর সহিংসতা শুরু হওয়ার পর থেকে জাতিসংঘ উত্তর রাখাইনে মানবিক সহায়তা প্রদানের অনুমতি দেওয়ার আহ্বান জানিয়ে আসছিল। আগস্টের শেষ দিকে এই সহিংসতা শুরু হওয়ার পর থেকে এ পর্যন্ত চার লাখ ৮০ হাজার রোহিঙ্গা বাড়িঘর ছেড়ে বাংলাদেশে এসে আশ্রয় নেয়। এরপর সহিংসতা চালানোর স্থান পরিদর্শনে যেতে জাতিসংঘ বারবার আহ্বান জানিয়ে আসছে।

গত বুধবার জাতিসংঘ জানিয়েছিল, মিয়ানমার কর্তৃপক্ষ থেকে তাদের বলা হয়েছে একটি প্রতিনিধিদল বৃহস্পতিবার সরকার আয়োজিত সফরে যেতে পারবে। সে অনুযায়ী জাতিসংঘ প্রতিনিধিদল গতকাল রাখাইনে যেতে প্রস্তুত ছিল।

অন্য দিকে জাতিসংঘের মুখপাত্র স্টিফেন দুজারিক গত বুধবার এই সফর বাতিলের আগে বলেছিলেন, জাতিসংঘের সংস্থাগুলো এই সফর করতে যাচ্ছে। তিনি প্রত্যাশা ব্যক্ত করে বলেছিলেন, ওই এলাকায় প্রথম পদক্ষেপটি হবে অনেক মুক্ত পরিবেশে। সফর বাতিলের এই অবস্থার মধ্য দিয়েই গতকাল শেষ প্রহরে (বাংলাদেশ সময় শুক্রবার ভোররাতে) জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদ রোহিঙ্গা সংকট নিয়ে বৈঠকে বসতে যাচ্ছে।

সংখ্যালঘু রোহিঙ্গা মুসলিমদের ওপর নিপীড়নের ওই এলাকায় সফরে যেতে আন্তর্জাতিক ত্রাণ সংস্থা ও বৈশ্বিক গণমাধ্যমকর্মীদের প্রবেশাধিকার কঠোরভাবে নিয়ন্ত্রণ করে মিয়ানমার সেনাবাহিনী ও সরকার। মানবিক সংকট ও ব্যাপক মাত্রায় নিপীড়নের অভিযোগ থাকার পরও সেখানে কারো পক্ষে স্বাধীনভাবে প্রবেশ করা অসম্ভব। বাংলাদেশে আশ্রয় নেওয়া রোহিঙ্গারা জানিয়েছে, তাদের গ্রামগুলোতে হত্যা ও পদ্ধতিগত অগ্নিসংযোগ চালানো হয়েছে। আন্তর্জাতিক মানবাধিকার সংস্থাগুলো বলছে, এখনো কয়েক হাজার রোহিঙ্গা মুসলিম উত্তর রাখাইনে খাদ্য, ওষুধ ও আশ্রয়ের অভাবে দিন কাটাচ্ছে। এই অবস্থায় জাতিসংঘ প্রতিনিধিদলটির সফর বাতিল করল মিয়ানমার সরকার। সূত্র :  এএফপি, বিবিসি।

বাংলাদেশে রোহিঙ্গা পাঁচ লাখ ছাড়িয়েছে : জাতিসংঘ

সর্বশেষ হিসাবে তুলে ধরে জাতিসংঘ জানিয়েছে, সাম্প্রতিক সহিংসতার কারণে মিয়ানমার থেকে বাংলাদেশে পালিয়ে আসা রোহিঙ্গাদের সংখ্যা পাঁচ লাখ ছাড়িয়েছে। গতকাল বৃহস্পতিবার রোহিঙ্গা ইস্যুতে জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদের বৈঠকের কয়েক ঘণ্টা আগে এ তথ্য জানায় বিশ্ব সংস্থাটি। মিয়ানমারে সেনাবাহিনী ও রাখাইন বৌদ্ধদের সহিংতা বন্ধ না হওয়ায় রোহিঙ্গাদের বাংলাদেশ অভিমুখী ঢল অব্যাহত রয়েছে বলে দেশি-বিদেশি গণমাধ্যমগুলোও জানিয়েছে।

গতকাল (বাংলাদেশ সময় মধ্যরাত) জাতিসংঘের উপমুখপাত্র ফারহান হক নিউ ইয়র্কে সাংবাদিকদের কাছে এই তথ্য তুলে ধরেন। তিনি বলেন, আগস্টে শুরু হওয়া সহিংসতা থেকে বাঁচতে মিয়ানমার থেকে বাংলাদেশে পালিয়ে যাওয়া রোহিঙ্গাদের সংখ্যা পাঁচ লাখ অতিক্রম করেছে। এ নিয়ে বাংলাদেশে আশ্রয় নেওয়া রোহিঙ্গাদের সংখ্যা সাত লাখ অতিক্রম করেছে বলে ধারণা করা হচ্ছে। তিনি বলেন, গত কয়েক দশকে এই অঞ্চলে শরণার্থীর সংখ্যা এটাই সবচেয়ে বেশি। তিনি জানান, সেপ্টেম্বরের প্রথম দিকে জাতিসংঘের আহ্বানের পর এ পর্যন্ত রোহিঙ্গা শরণার্থীদের মানবিক সহায়তার জন্য তিন কোটি ৬৪ লাখ মার্কিন ডলার সহায়তা পাওয়া গেছে, যা আহ্বানকৃত সাত কোটি ৭০ লাখ মার্কিন ডলারের প্রায় অর্ধেক। সূত্র : সানফ্রান্সিসকো ক্রনিক্যাল।

Check Also

বিশ্বে করোনায় মৃত্যু ছাড়াল ৯ লাখ ১৩ হাজার

নিউজ ডেস্ক : বৈশ্বিক মহামারি করোনাভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা প্রায় ২ কোটি ৮৩ লাখ ২৪ হাজার …

%d bloggers like this: