Home / খেলাধুলা / চূড়ান্ত হয়েছে বাংলাদেশের বিশ্বকাপ জার্সি

চূড়ান্ত হয়েছে বাংলাদেশের বিশ্বকাপ জার্সি

স্পোর্টস ডেস্ক: চূড়ান্ত হয়েছে ইংল্যান্ড বিশ্বকাপে বাংলাদেশের জার্সি। ডিজাইনে নতুনত্ব এনে আকর্ষণীয় করার চেষ্টা করেছে প্রস্তুতকারক প্রতিষ্ঠান স্পোর্টস অ্যান্ড স্পোর্টজ ডিজাইন। বাংলাদেশ দল আয়ারল্যান্ডে ত্রিদেশীয় সিরিজ খেলতে যাবার আগে বিসিবি বিশ্বকাপ জার্সি উন্মোচন করবে। এর পরেই সাধারণ দর্শকরাও নির্দিষ্ট শো-রুম থেকে কিনতে পারবেন বিশ্বকাপ জার্সি। সমর্থকদের কথা বিবেচনায় রেখে জার্সির দাম ক্রয় ক্ষমতার মধ্যেই রাখছে প্রতিষ্ঠানটি।

লাল-সবুজ জার্সিতে ১৬ কোটির বাংলাদেশকে ক্রিকেট ক্যানভাসে প্রতিনিধিত্ব করেন মাশরাফী-সাকিবরা। ক্রিকেটারদের দেশাত্মবোধ ফুটে ওঠে গর্বের এই লাল-সবুজ জার্সিতে। তাই তো বাংলাদেশের বিশ্বকাপের জার্সি কেমন হবে এ নিয়ে সমর্থকদের মাঝে আগ্রহ সীমাহীন।

বিশ্বকাপ শুরুর ক্ষণ গণনা চলছে। বিশ্ব প্রস্তুত হচ্ছে দেড় মাসের ক্রিকেট উৎসবে মেতে উঠতে। বাংলাদেশও তার ব্যতিক্রম নয়। মাঠে প্রস্তুতি নিচ্ছেন তামিম-মুশফিকরা। আর গ্যালারি থেকে গলা ফাটাতে প্রস্তুত হচ্ছেন সমর্থকরা।

এরই মধ্যে চূড়ান্ত হয়ে গেছে বাংলাদেশের বিশ্বকাপ জার্সি। টাইগাররা বিশ্বকাপ যাত্রা শুরু করেছিল যে ইংল্যান্ডে, এবারো খেলা সেখানে। তাই তো আলাদা গুরুত্ব দেয়া হয়েছে জার্সি তৈরীতে। তবে ১৯৯৯ বিশ্বকাপ জার্সির সঙ্গে খুব একটা মিল নেই এবার। ২০১৬ টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ জার্সির আদলে করা হয়েছে ইংল্যান্ড বিশ্বকাপের জার্সি।

স্পোর্টস এন্ড স্পোর্টস ডিজাইনের ব্যবস্থাপনা অংশীদার মেহতাবুদ্দিন আনোয়ার আহমেদ সেন্টু বলেন, প্ল্যান ছিল ১৯৯৯ সালের জার্সিকে মাথায় রেখে কিছু একটা করার। আপনারা জানেন, আইসিসি ইভেন্টে দুই রংয়ের জার্সি হয়। আমাদের দেশের জন্য সেটা লাল আর সবুজ। আমরা লাল জার্সিটাতে একটু ভিন্টেজ লুক দেবার চেষ্টা করেছি। ১৯৯৯ এর বিশ্বকাপ জার্সিতে সবুজের সাথে হলুদের একটা প্যাচ ছিলো বুকের উপর। আমাদের লাল জার্সিতেও ওইরকম একটা কিছু থাকবে, সবুজের একটা টেক্সচার থাকবে। সবুজটাকে প্রাধান্য দিয়ে সেখানে বৈচিত্র্য আনা হয়েছে, কোথাও হালকা, কোথাও গাঢ় করা হয়েছে।

এবারই প্রথম বাংলাদেশের রেপ্লিকা জার্সি বিক্রি করার স্বত্ত্ব পেয়েছে স্পোর্টস অ্যান্ড স্পোর্টজ ডিজাইন। গেলো ক’বছর ধরে তারাই তৈরী করে আসছে জাতীয় দলের জার্সি। নকল জার্সিতে পুরো দেশ সয়লাব। তবে এবার দর্শকরা নিতে পারবেন আসল জার্সি। দামটাও থাকছে ক্রয় ক্ষমতার মধ্যে।

স্পোর্টস এন্ড স্পোর্টস ডিজাইনের ব্যবস্থাপনা অংশীদার মেহতাবুদ্দিন আনোয়ার আহমেদ সেন্টু বলেন, পরিচিত ব্র্যান্ডের মাধ্যমে সেল করবো। কথা দিতে পারি সাধারণ মানুষের ক্রয় ক্ষমতার মধ্যেই থাকবে। অরিজিনাল জার্সি কপি করতে গিয়ে বিকৃত হয়ে যায়। বোর্ড এবার বলেছে তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেবে।

বিশ্বকাপ বলে কথা। তাই জার্সিটাই আকর্ষণীয় করেছে প্রস্তুতকারী প্রতিষ্ঠান।

স্পোর্টস এন্ড স্পোর্টস ডিজাইনের ব্যবস্থাপনা অংশীদার মেহতাবুদ্দিন আনোয়ার আহমেদ সেন্টু বলেন, বিসিবি-র লোগোটা এম্ব্রয়ডারি করা হয়েছে। ফুটবলের চ্যাম্পিয়নস লীগের লোগোর আদলে করা হয়েছে। দেখতে খুব ভাল হবে।

আকর্ষণীয় জার্সিতে বাংলাদেশ দলও বিশ্বকাপে করবে নজরকাড়া পারফরম্যান্স। এমনই প্রত্যাশা সবার।

Check Also

মেসির ‘অজানা’ কয়েক রেকর্ড

নিউজ ডেস্ক: বার্সেলোনা ও আর্জেন্টিনার হয়ে ক্যারিয়ারে অসংখ্য রেকর্ড ভেঙেছেন-গড়েছেন লিওনেল মেসি। বেশিরভাগ নিয়েই হয়েছে …

%d bloggers like this: