Home / লাইফস্টাইল / ফ্যাশন / চুলের নানান সমস্যার সমাধান

চুলের নানান সমস্যার সমাধান

লাইফস্টাইল ডেস্ক: মুখের ছোটখাটো খুঁত ঢাকতে কিংবা মুখের সৌন্দর্য বের করে আনতে চুলের ভূমিকা অনস্বীকার্য। এক ঘেয়ে জীবনে একটু বৈচিত্র্যের ছোঁয়া আনতে আপনার মুখের সঙ্গে মানানসই একটি হেয়ার কাট নিয়ে দেখুন আপনার চেহারার সৌন্দর্য কতটা বেড়ে গেছে। আপনাকে করে তুলবে আত্মবিশ্বাসী।

পরামর্শ দিয়েছেন আকাঙ্খা’স গ্লামার ওয়ার্ল্ডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক অ্যারোমা থেরাপিস্ট জুলিয়া আজাদ

চুলের নানা রকম সমস্যা। কারও চুল ভেঙে যাচ্ছে কারও চুল পড়ে মাথা ফাঁকা হয়ে যাচ্ছে। অনেকের অল্প বয়সে চুল পেকে যাওয়ায় সমস্যা দেখা দেয়। সমস্যা যাই থাক সমাধান করার যথাসাধ্য চেষ্টা আপনাকেই করতে হবে। যত্নে যদি গাফিলতি করেন তবে মাথার চুল আপনার সৌন্দর্যহানি করতে যথেষ্ট।

কারণ মুখের ছোটখাটো খুঁত ঢাকতে কিংবা মুখের সৌন্দর্য বের করে আনতে চুলের ভূমিকা অনস্বীকার্য। এক ঘেয়ে জীবনে একটু বৈচিত্র্যের ছোঁয়া আনতে আপনার মুখের সঙ্গে মানানসই একটি হেয়ার কাট নিয়ে দেখেন আপনার চেহারার সৌন্দর্য অনেকখানি বাড়িয়ে দেবে। আপনাকে করে তুলবে আত্মবিশ্বাসী; কিন্তু হেয়ার কাট দেয়ার মতো সুন্দর চুল আপনার থাকতে হবে।

যদি চুলই না তাকে তবে স্টাইল করে চুল কাটলেও আপনাকে সুন্দর লাগবে না। মনে হল আর চুলের যত্ন করতে শুরু করলেন। কয়েকদিন করে ছেড়ে দিলেন আর করলেন না, নিয়মিত না করলে ফল পাবেন কীভাবে। একটু ধৈর্য ধরে প্রতিদিনই একটু একটু করে চুলের যত্ন নিন। স্কাল্প পরিষ্কার রাখুন। প্রতিদিন চুল শ্যাম্পু করতে পারেন; কিন্তু আপনার চুলের ধরন বুঝে শ্যাম্পু বেছে নিন। কন্ডিশনিং করতে ভুলবেন না। চুলের আগায় কন্ডিশনিং করুন; চুল শুষ্ক প্রাণহীন হবে না।

প্রতিদিন তেল ব্যবহার করতে পারেন। রাতে শোবার আগে একটা তেল বানিয়ে রেখে দিন নিজের জন্য। খুব ভালো নারিশমেন্ট করবে আপনার চুল। এক কাপ আলমন্ড অয়েল, আধাকাপ কেষ্টর অয়েল একটা বোতলে ভরে রেখে দিন। এর সঙ্গে দুই চা চামচ মেথি এবং দুই চা চামচ কালোজিরা বোতলে সব উপকরণ একসঙ্গে মিশিয়ে পরপর দুই দিন রোদে দিন। মাঝে মধ্যে একটু একটু ঝাঁকি দিন। ঠিক দুই দিন পর এ তেল ব্যবহারের উপযোগী হয়ে যাবে।

এ তেল প্রতিদিন রাতে শোবার আগে চুলের গোড়ায় লাগিয়ে নিন সিথি করে; ভালো করে গোড়ায় লাগিয়ে এরপর চুলের আগায় ভালোভাবে লাগিয়ে হাত দিয়ে ম্যাসাজ করতে হবে ভালো করে। এরপর ধীরে ধীরে মোটা চিরুনি দিয়ে আঁচড়ে আলগা করে চুল বেঁধে শুয়ে পড়তে হবে।

সপ্তাহে দুই দিন একটা হেয়ার প্যাক ব্যবহার করতে হবে। চার চা চামচ মেহেদি পাতা গুঁড়া, এক চা চামচ ভিটামিন ক্যাপসুল, এক কাপ চায়ের লিকার উষ্ণ গরম থাকা অবস্থায় সব উপকরণ এক সঙ্গে মিশিয়ে নিতে হবে এবং ভালোভাবে চুলের গোড়া থেকে আগা পর্যন্ত লাগিয়ে নিন এ পেস্ট। দুই ঘণ্টা এ পেস্ট চুলে লাগিয়ে রেখে পরে নরমাল পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলতে হবে। ওইদিন শ্যাম্পু করার দরকার নেই। পর দিন শ্যাম্পু করে নিন।

পাকা চুলের সমস্যাও সমাধান হয়ে যাবে এবং চুলে একটা নেচারাল সাইন আসবে। চুলের গোড়া মজবুত হবে। প্রথম প্রথম এ হেয়ার প্যাক ব্যবহার করুন এক মাস পর্যন্ত। ওই এক মাসে আপনাকে আটবার ব্যবহার করতে হবে।

এতে আপনার চুলের সমস্যার সমাধান হয়ে যাবে। এর এক মাস পর সপ্তাহে এক দিন দুই চা চামচ টকদই, এক চা চামচ আমলকী গুঁড়া, লেবুর রস ভালো করে মিশিয়ে চুলের গোড়া থেকে আগা পর্যন্ত এ হেয়ার মাস্ক লাগান এবং পঁয়তাল্লিশ মিনিট পর ধুয়ে ফেলুন।

চুলে সমস্যা যাই থাক সবকিছুই সমাধান হয়ে যাবে। এক থেকে দুই মাসের মধ্যে। আর পাকা চুল আবার ধীরে ধীরে কালো হতে শুরু করবে।

Check Also

৭০ বছর পর কলকাতায় গেল যাত্রীবাহী জাহাজ

নিউজ ডেস্ক : দীর্ঘ ৭০ বছর পর ৬১ জন পর্যটকসহ ১৩৭ জনের প্রথম বহর নিয়ে …

Leave a Reply

Your email address will not be published.