Home / দেশজুড়ে / চট্টগ্রাম / গুলিবিদ্ধ পাঁচজন হাসপাতালে, ২৫০ জনের বিরুদ্ধে মামলা

গুলিবিদ্ধ পাঁচজন হাসপাতালে, ২৫০ জনের বিরুদ্ধে মামলা

দেশজুড়ে ডেস্ক: নোয়াখারীর দ্বীপ উপজেলা হাতিয়ায় স্থানীয় আওয়ামী লীগের দু’পক্ষের সংঘর্ষের পর বুধবার বিকেল থেকে আজ বৃহস্পতিবার বিকেল পর্যন্ত সেখানে থমথমে পরিস্থিতি বিরাজ করছে। সংঘর্ষের সময়ে গুলিতে আহত ৫ জনকে বৃহস্পতিবার সকালে নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। এদের মধ্যে ৩ জনের অবস্থার অবনতি হওয়ায় বিকালে তাদের ঢাকায় উন্নত চিকিত্সার জন্য পাঠানো হয়েছে। এদিকে পুলিশের কাজে বাধা দেওয়ায় দু’পক্ষের ২২ জনের নাম উল্লেখ করে এবং অজ্ঞাত আড়াইশত জনকে আসামি করে বুধবার রাতে পুলিশ বাদী হয়ে হাতিয়া থানায় একটি মামলা দায়ের করেছে। তবে পুলিশ কাউকে গ্রেপ্তার করতে পারেনি।

বুধবার দুপুরে হাতিয়ার স্থানীয় আওয়ামী লীগের আন্তঃকোন্দল ও যুবলীগ কর্মী রিয়াজকে হত্যার ঘটনায় স্থানীয় সংসদ সদস্য আয়েশা ফেরদৌসের স্বামী সাবেক সংসদ সদস্য মোহাম্মদ আলীসহ তার অনুসারীদের বিরুদ্ধে হত্যা মামলা দায়েরের জের ধরে সংসদ সদস্য আয়েশা ফেরদৌসের স্বামী মোহাম্মদ আলীর অনুসারীদের সঙ্গে আগামী নির্বাচনে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন প্রত্যাশী মাহমুদ আলী রাতুলের সমর্থকদের পাল্টা পাল্টি হামলা ও গুলিবর্ষনের ঘটনা ঘটে। এ সময় পুলিশ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে শতাধিক রাউন্ড টিয়ার গ্যাস ও শটগানের গুলি ছুঁড়ে। এ ঘটনায় পুলিশসহ ২৫ জন আহত হয়। গুলিবিদ্ধ যুবলীগ ও ছাত্রলীগের পাঁচ কর্মীকে গুরুতর অবস্থায় নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। এরা হলেন- নাজিম উদ্দিন (২৫), সাঈদ উদ্দিন (২৬), মাইন উদ্দিন (২৫), আবদুর রহসান (২২) ও আরিফুল ইসলাম সজিব (৩২)।

হাসপাতালের জরুরি বিভাগের চিকিত্সক মো. জহিরুল ইসলাম জানিয়েছেন, আহতদের শরীরের বিভিন্ন স্থানে শর্টগানের বুলেটবিদ্ধ হয়েছে।

তাদের মধ্যে মাইন উদ্দিন ও সাঈদ উদ্দিন ও মনির উদ্দিনের গলায় ও পেটে গুলিবিদ্ধ হওয়ায় তাদের তিনজনকে বিকালে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে উন্নত চিকিত্সার জন্য পাঠানো হয়।হাতিয়া সার্কেলের দায়িত্বে থাকা সহকারী পুলিশ সুপার গোলাম ফারম্নক জানান, বুধবারের ঘটনায় হাতিয়া থানার এস আই সফিকুল ইসলাম বাদী হয়ে ২২ জনের নাম এজাহারে উল্লেখসহ অজ্ঞাত আরো আড়াই শ জনের বিরুদ্ধে মামলা করা হয়েছে। আসামিদেরকে ধরার বিষয়ে তত্পর রয়েছে পুলিশ।

উল্লখ্য, বিগত ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচনের পর থেকে দ্বীপ উপজেলা হাতিয়ায়  স্থানীয় সংসদ সদস্য আয়েশা ফেরদৌসের স্বামী সাবেক সংসদ সদস্য মোহাম্মদ আলীর সঙ্গে সাবেক সংসদ সদস্য ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি অধ্যাপক ওয়ালী উল্লাহ তার ভাইপো উপজেলা আওয়ামী লগের সাধারণ সম্পাদক চর কিং ইউপি চেয়ারম্যান মহিউদ্দিনের বিরোধ চরম আকার ধারণ করে। বেশ কয়েক দফায় সহিংশ ঘটনায় উভয় পক্ষের অনেক নেতা-কর্মী হতাহত হয়েছে। সম্প্রতি ব্যবসায়ী মাহমুদ আলী রাতুল আগামী নির্বাচনে আওয়ামী লীগের নৌকা পেতে অধ্যাপক ওয়ালী উল্লাহ ও তার ভাইপো মহিউদ্দিনের পক্ষ নেয়। এবং সে এখন হাতিয়ায় নিয়মিত জনসংযোগ করায় বিরোধ আরো বেড়ে গেছে।

Check Also

এই সৌদি প্রবাসীদের কী হবে?

নিউজ ডেস্ক  : সৌদি আরবে নতুন করে বাংলাদেশ বিমানের ল্যান্ডিংয়ের অনুমতি না মেলায় জটিলতা কাটছে …

%d bloggers like this: