Home / খেলাধুলা / খুলনাকে জেতালেন আরিফুল

খুলনাকে জেতালেন আরিফুল

স্পোর্টস ডেস্ক: আরিফুলের ১৯ বলে ৪৭ রানের অতিমানবীয় ব্যাটিংয়ে রাজশাহী কিংসকে দুই উইকেটে হারাল খুলনা কিংস। এই জয়ে পয়েন্ট টেবিলের নিজেদের অবস্থান আরো শক্ত করল মাহমুদউল্লাহ রিয়াদের দল। মিরপুর শেরে বাংলা জাতীয় স্টেডিয়ামে প্রথমে ব্যাটিং করে আট উইকেটে ১৬৬ রান করে রাজশাহী কিংস। জবাবে মাহমুদউল্লাহ রিয়াদের অসাধারণ ব্যাটিং আর শেষের দিক আরিফুলের ঝড়ো ইনিংসে ২ উইকেটের জয় তুলে নেয় খুলনা টাইটানস।
 
১৬৭ রানের লক্ষ্যে খেলতে নেমে প্রথম ওভারেই চ্যাডউইক ওয়ালটনকে হারায় খুলনা। তৃতীয় ওভারে সেকুগে প্রসন্ন ফিরলে বিপদেই পড়ে যায় দলটি। এরপর রিলে রুশো ও মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ মিলে খুলনার ইনিংসটা সামলান। এই দুজন যোগ করেন ৬৭ রান।
 
দলীয় ৮০ রানে রুশোর পর আফিফ হোসেনও দ্রুতই ফেরেন। এরপর একে একে মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ, নাজমুল হোসেন শান্ত ও কার্লোস বার্থওয়েট ফিরে গেলে প্রায় হেরেই বসে খুলনা। ৪৪ বলে ৫৬ রান করেন মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ।
 
শেষ দিকে ঝড় তোলেন আরিফুল ইসলাম। ম্যাচ জেতানোর দায়িত্ব একাই নিজের কাঁধে তুলে নেন এই ব্যাটসম্যান। মাত্র ১৯ বলে ৪৩ রান করে খুলনাকে অবিশ্বাস্য জয় এনে দেন তিনি। বাকি ব্যাটসম্যানদের মধ্যে রিলে রুশো করেন ২০ রান।
 
এর আগে খুলনা টাইটানসের বিপক্ষে টস হেরে ব্যাটিং করতে নামে রাজশাহী কিংস। ব্যাট করতে নেমে ঝড় তোলেন ডোয়াইন স্মিথ। তবে অন্যপ্রান্তে উইকেটের মিছিল শুরু হয়। ২১ রানে তিনটি উইকেট হারিয়ে বসে দলটি। সতীর্থরা যাওয়া-আসার মধ্যে থাকলেও স্মিথ খেলেছেন নিজের মতোই।
 
৩৬ বলে ৬২ রান করেন ডোয়াইন স্মিথ। দলীয় ৯৭ রানে স্মিথ ফেরার পর রাজশাহীর ইনিংসটা সামলান মুশফিকুর রহিম। ৩৩ বলে ৫৫ রান করেন এই টাইগার ব্যাটসম্যান। লোয়ার অর্ডারে স্যামি-মিরাজরা ব্যর্থ হন। তবে জেমস ফ্রাঙ্কলিনের ২৯ রানের দায়িত্বশীল ইনিংসে শেষ পর্যন্ত সংগ্রহটা ১৬৬ পর্যন্ত নিয়ে যায় রাজশাহী কিংস।
 
খুলনার জুনায়েদ খান নেন চার উইকেট। এ ছাড়া আবু জায়েদ রাহী নেন দুটি। এই হারে বেশ বেশ বিপদেই পড়ল রাজশাহী কিংস। একেবারে খাদের কিনারে পৌঁছে গেলেন মুশফিকুর রহিম-ড্যারেন স্যামিরা। বলাই বাহুল্য, শেষ চারে ওঠাটা কষ্টকর হয়ে গেল দলটির জন্য।

Check Also

গার্দিওয়ালার অধীনে আবারও যাবেন মেসি?

নিউজ ডেস্ক  : নির্ঘুম রাত কাটছে মেসি ভক্তদের। ক্লাবের সবচেয়ে বড় তারকা যে আনুষ্ঠানিক জানিয়ে …

%d bloggers like this: