Breaking News
Home / খেলাধুলা / ক্রিকেটারদের মাস্ক ব্যবহারের পরামর্শ বিসিবি চিকিৎসকের

ক্রিকেটারদের মাস্ক ব্যবহারের পরামর্শ বিসিবি চিকিৎসকের

নিউজ ডেস্ক : সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখলে মাস্ক পরতে হবে না ক্রিকেটার বা ট্রেইনার কাউকেই। তবে অনুশীলনের প্রয়োজনে খুব কাছাকাছি অবস্থান করলে কেবল সে সময়টায় মাস্ক ব্যবহার বাধ্যতামূলক। এমনটাই নিশ্চিত করেছেন ডা. দেবাশীষ চৌধুরী। তবে শ্বাসপ্রশ্বাস সংক্রান্ত যে কোনো সমস্যা থাকলে মাস্ক ব্যবহারে সতর্ক থাকতে হবে বলেও জানান বিসিবির প্রধান চিকিৎসক।

স্বাভাবিকত্বের সংজ্ঞা পাল্টে দিয়েছে একটা ক্ষুদ্র অণুজীব। মাঠে ট্রেইনাররা হাতে ধরে অনুশীলন করাবেন ক্রিকেটারদের, এটাই তো চিরচেনা দৃশ্য। তবে লকডাউন পরবর্তী ব্যক্তিগত ঐচ্ছিক অনুশীলনে ক্রিকেটার আর ট্রেইনারদের আচরণ বিধিতেই বাড়তি মনোযোগ সবার।

মাস্ক ব্যবহার করবে কে? ক্রিকেটার, ট্রেইনার নাকি দুজনই? রানিং বা ভারী ব্যায়ামের সময় মাস্কের ব্যবহার কতটা যুক্তিযুক্ত? সামাজিক দূরত্ব রাখলে মাস্কের প্রয়োজনীয়তাই বা কতটুকু! এ নিয়ে বহু জলঘোলাও হয়েছে। পরিমার্জিত নির্দেশনাটা জানিয়েছেন টাইগারদের চিকিৎসক।

যদি আউটডোর অনুশীলনে কেউ অংশ নেয়, তার আশপাশে যদি জনসমাগম না থাকে তাহলে সেক্ষেত্রে এটি প্রয়োজন নেই। তবে জনসমাগম থাকলে এটি বাধ্যতামূলক।

ক্রিকেটাররা শারীরিকভাবে ফিট। তারপরও শ্বাসযন্ত্রজনিত সামান্যতম সমস্যা থাকলেও মাস্ক ব্যবহারে নিরুৎসাহিত করা হয়েছে সংশ্লিষ্টদের। আর মাস্ক একান্ত পড়তেই হলে, তবে একাধিক কোয়ালিটি যাচাই করে স্বস্তিদায়ক মাস্ক ব্যবহারের পরামর্শ দিলেন ডা. দেবাশীষ।

তিনি আরো বলেন, ‘মাস্ক হতে হবে সর্বোচ্চ মানের ফ্রেবিকের। যাতে ঘামে অসুবিধা না হয়। সবাইকে সর্বোচ্চ সতর্ক হতে হবে এ ব্যাপারে। কারো শ্বাসকষ্টজনিত সমস্যা থাকলে তাদের ক্ষেত্রে সতর্ক হওয়া জরুরি।’

অনুশীলনের সময় মাঠেও উপস্থিত ছিলেন বিসিবি চিকিৎসক। সঙ্গে আরও দু’জন স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞ। আলোচনা করছিলেন আরও কী কী উপায়ে সর্বোচ্চ সুরক্ষিত রাখা যায় ক্রিকেটারদের। হয়তো টাইগারদের স্বাস্থ্যবিধির ব্যাপারে দ্রুতই আসতে যাচ্ছে কিছু নতুন সিদ্ধান্ত।

Check Also

ছুটি শেষে আবারো অনুশীলনে ফিরছে টাইগাররা

নিউজ ডেস্ক : ঈদের ছুটি শেষে আবারো কাল (শনিবার) থেকে মাঠে ফিরবেন বাংলাদেশের ক্রিকেটাররা। দ্বিতীয় …

%d bloggers like this: