Home / খেলাধুলা / আত্মবিশ্বাস আছে, ভালো কিছু করবো: বিজয়

আত্মবিশ্বাস আছে, ভালো কিছু করবো: বিজয়

খেলার খবর : আবারও জাতীয় দলে ডাক পেয়ে খুবই রোমাঞ্চিত এনামুল হক বিজয় ও মোহাম্মদ মিঠুন।

যেকোনো ভূমিকাতেই টাইগার ক্রিকেটে পারফর্ম করে যেতে চান এই দুই উইকেটরক্ষক ব্যাটসম্যান।

এছাড়া, আসন্ন ত্রিদেশীয় সিরিজে অভিজ্ঞতার বিচারে বাংলাদেশকে অনেকটাই এগিয়ে রাখেন বিজয় ও মিঠুন।

নেটে একের পর এক ছক্কা হাঁকিয়ে চলেছেন তামিম ইকবাল। অপর প্রান্তে অপেক্ষা করছিলেন এনামুল হক বিজয়। এই অপেক্ষাটা তার দীর্ঘ সময়ের।

১৫ জানুয়ারি সেই অপেক্ষ ঘুচবে- বিশ্বাস বিজয়ের। ঘরোয়া লিগে সংগ্রামের দিনগুলো কিংবা জাতীয় দলে খেলার জন্য মরিয়া হয়ে থাকার দিনগুলো এই ব্যাটসম্যানকে সামনে এগুনোর অনুপ্রেরণা দেয়।

‘তামিম ভাই,  মুশফিক ভাই, সাকিব ভাই, মাহমুদুল্লাহ ভাই, মাশরাফি ভাই- সবসময় হেল্প করেছেন আমাকে যেকোনো ভাবে।

জাতীয় দলে খেলা অবশ্যই স্বপ্নের একটা জায়গা। স্ট্রাগল করেছি ইনজুরির কারণে আবার অনেক সময় ভালোমতো খেলেছি।

গত তিন বছরে বেশ ভালো পারফর্ম করেছি, আলহামদুলিল্লাহ। সেকারণেই মনে হয়েছে, কনফিডেন্স আছে, ভালো কিছু করতে পারবো।’

বাংলাদেশ দলের জার্সিতে আরও একবার কাঙ্ক্ষিত সুযোগ পেয়েছেন মোহাম্মদ মিঠুনও। রোমাঞ্চটা লুকাননি।

বিজয়ের মতো তিনিও উইকেটরক্ষক-ব্যাটসম্যান। ২০১৪ সালে অভিষেক হওয়ার পরও দলে নিয়মিত হতে না পারার গল্পটা এবার বদলাবেন তিনি।

‘পারফর্ম্যান্সটাই মূল লক্ষ্য। কোথায় সুযোগ হবে- আমি এখনও আসলে জানি না। যেখানে সুযোগ হবে ওখান থেকেই চেষ্টা করবো আমার বেস্ট পসিবল এফোর্টটা দিতে।’

ত্রিদেশীয় সিরিজের আগে পুরোদস্তর প্রস্তুতি চলছে মাশরাফিদের। একপাশে ব্যাটসম্যানকে অনবরত বোলিং করে চলেন মুস্তাফিজ, রুবেল, সাইফুদ্দীন, রাজুরা। আর অন্যদিকে দাঁড়িয়ে তা পর্যবেক্ষণ করেন পেস বোলিং কোচ কোর্টনি ওয়ালশ।

আসন্ন সিরিজে বাংলাদেশকে এগিয়ে রাখেন বিজয় মিঠুনরাও।

মিঠুন বলেন, ‘আমাদের দলে অনেক প্লেয়ার আছেন যারা ৮-১০ বছর ধরে খেলছেন।

শ্রীলঙ্কা দল সেদিক থেকে কিছুটা পিছিয়ে কারণ ওদের নতুন স্কোয়াড। সুতরাং আমরা যদি আমাদের বেস্ট পসিবল ক্রিকেটটা খেলতে পারি, আমরাই এগিয়ে থাকবো।’

বিজয়ের ভাষ্য, ‘আমরা যদি চ্যাম্পিয়ন হতে পারি, বা খুব ভালো পাফর্ম্যান্স হয়, তাহলে বছরটা খুব ভালোভাবে শুরু হবে। এরকম একটা টিমের মেম্বার যদি আমি হতে পারি, তাহলে নিজের কাছেই খুব ভালো লাগবে।’

পরীক্ষাটা বড় আরেকজনের জন্য- টেকনিকাল ডিরেক্টর খালেদ মাহমুদ সুজন। অনুশীলনে পরিচালকের ভূমিকায় তিনি। বিভিন্নপাশে ঘুরে ফিরে দেখে নেন ছাত্রদের ব্যাটিং বোলিং। গুছিয়ে নেন পরিকল্পনা।

Check Also

গার্দিওয়ালার অধীনে আবারও যাবেন মেসি?

নিউজ ডেস্ক  : নির্ঘুম রাত কাটছে মেসি ভক্তদের। ক্লাবের সবচেয়ে বড় তারকা যে আনুষ্ঠানিক জানিয়ে …

%d bloggers like this: