Home / ফিচার / আগরতলা-নয়াদিল্লি আড়াই হাজার কিলোমিটার পাড়ি দেবে নতুন ট্রেন

আগরতলা-নয়াদিল্লি আড়াই হাজার কিলোমিটার পাড়ি দেবে নতুন ট্রেন

ফিচার ডেস্ক: ভারতের পূর্বদিকে বাংলাদেশ সংলগ্ন রাজ্য ত্রিপুরার সঙ্গে ভারতের রাজধানীর যোগাযোগ ব্যবস্থা মোটেও ভালো ছিল না। এ কারণে সহজে যাতায়াতের জন্য অনেক ত্রিপুরাবাসী বাংলাদেশের ভেতর দিয়েও যাতায়াত করতেন। তবে এবার সে ঝামেলা দূর হচ্ছে। ত্রিপুরার রাজধানী আগরতলার সঙ্গে নয়াদিল্লি প্রায় আড়াই হাজার কিলোমিটারের দূরত্ব। বিশাল এ দূরত্বে নতুন ট্রেন চালু করা হয়েছে। এ ট্রেনের যাত্রাপথ ২৪৩০ কিলোমিটার। তবে এত দীর্ঘ পথ ট্রেনটি অতক্রম করবে প্রায় ৪১ ঘণ্টায়। ট্রেনটির গড় গতি থাকবে প্রতি ঘণ্টায় ৫৯ কিলোমিটার। প্রায় আড়াই হাজার কিলোমিটারের বিশাল দূরত্বের ট্রেন অনেকের কাছে অস্বাভাবিক মনে হলেও এটি কোনো রেকর্ড নয়। ভারতের রাজধানীর সঙ্গে সংযোগকারী অন্য একটি ট্রেন কেরালা থেকে নয়াদিল্লি যাতায়াত করে, যার দূরত্ব ৩,১৪৯ কিলোমিটার। গতকাল শনিবার আনুষ্ঠানকভাবে চালু হয়েছে নতুন ‘রাজধানী এক্সপ্রেস’ ট্রেনটি। ত্রিপুরার রেলমন্ত্রী রাজেন গোঁহাই নতুন এই রেল সার্ভিসের উদ্বোধন করেন। এর মাধ্যমে আগরতলা রেলওয়ে স্টেশনের সঙ্গে সরাসরি ভারতের রাজধানীর যোগাযোগ স্থাপিত হলো। এই রুটে গত বছর ৩১ জুলাই ‘ত্রিপুরা সুন্দরী’ নামে একটি রেল সার্ভিস চালু হয়। রাজধানী এক্সপ্রেস চালু হওয়ায় অল্প সময়ে আরামে যাত্রীরা দিল্লি পৌঁছতে পারবেন।

আপাতত পরীক্ষামূলকভাবে চালু হয়েছে ট্রেনটি। আগামী ৬ নভেম্বর থেকে নিয়মিতভাবে ট্রেনটি যাতায়াত করবে। প্রতি সোমবার সন্ধ্যা সাড়ে ৬টায় আগরতলা থেকে ট্রেনটি ছাড়বে এবং বুধবার বেলা ১১টা ২০ মিনিটে নয়াদিল্লির আনন্দবিহারে পৌঁছবে। এরপর প্রতি বুধবার সন্ধ্যা ৭টা ৫০ মিনিটে আনন্দবিহার থেকে ট্রেনটি ছাড়বে এবং আগরতলা পৌঁছবে শুক্রবার দুপুর দেড়টায়। যাত্রাপথে ১৪টি স্টেশনে থামবে ট্রেনটি। ইতোমধ্যেই ট্রেনটির টিকিট বিক্রি শুরু হয়েছে। অনলাইনেও টিকিট বিক্রির ব্যবস্থা থাকছে। এ ট্রেনে এসি ফার্স্ট ক্লাসের ভাড়া ৭,০৬০ রুপি, এসি টু টায়ার ৪,৩৩০ ও এসি থ্রি টায়ার ৩,২০০ রুপি প্রায়।

Check Also

বিজ্ঞান ও ধর্মগ্রন্থসমূহে করোনাভাবনা

নিউজ ডেস্ক: কোনো সন্ত্রাসী বা জঙ্গিগোষ্ঠী নয়। পারমাণবিক বোমার হুমকি নয়। পৃথিবীব্যাপী একটাই ত্রাস, করোনাভাইরাস। …

%d bloggers like this: